ঢাকা ১০:১১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শ্যামপুর-সাবরেজিষ্ট্রি অফিসে কোটিপতি পিয়ন ! দুদকে অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপলোড সময় : ১১:০৫:০২ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ নভেম্বর ২০২৩
  • / ৭৩৪ বার পড়া হয়েছে

কোটিপতি পিয়ন হিসেবে পরিচিত রাজধানীর শ্যামপুর সাব-রেজিস্ট্রি কার্যালয়ের অফিস সহায়ক মো. তাজুল ইসলামের বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। প্রতিনিয়ত অনুসন্ধানে বেরিয়ে আসে তার নানা অনিয়ম দুর্নীতি। অনিয়ম আর দুর্নীতির আকরার গডফাদার এই অফিস সহায়ক তার সিন্ডিকেটে সাব-রেজিস্ট্রি কার্যালয়ের সব অফিসারদের সেবা গ্রহীতাকে জিম্মি করে নিজেদের নিয়ম মত কাজ করতে বাধ্য করে।
গত ২৮ নভেম্বর মোরশেদ আলম নামে এক ব্যক্তি একটি মানবাধিকার সংস্থার প্যাডে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) এ লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

অভিযোগ সুত্রে যানাযায়, সাব-রেজিস্ট্রি কার্যালয়ে তার নেতৃত্বে গড়ে উঠেছে একটি শক্তিশালী সিন্ডিকেট তাদের কথা মত কাজ না করলে নানা জটিলতা তৈরি করে সেবা গ্রহীতাদের হয়রানি করার অভিযোগ রেয়েছে বহু আগে থেকেই, শুধু সেবা গ্রহীতারাই নয় খোদ অফিসের উর্ধতন কর্মকর্তারা কথা মত কাজ না করলে কর্মস্থল থেকে বিতাড়িত হন। বিলাসবহুল রাজকীয় জীবন যাপনে অভস্থ কোটিপতি পিয়ন মোরশেদ আলম।

অনুসন্ধানের যানাযায়, কদমতলী থানা এলাকায় মেরাজ নগরে রয়েছে তার ১২ তলা একটি ভবন এই ভবনটি চারজন অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে গড়ে তুলছেন বলে যানান এলাকা বাসী এছাড়াও ডেমরা থানাধীন ৭০ নং ওয়ার্ড মস্তমাঝি এলাকায় রয়েছে তার আরো ১০ কাঠা জমি।
তবে এই সংবাদ প্রকাশের আগ পর্যন্ত অবৈধ পন্থায় সম্পদ অর্জনের কথা অস্বীকার করেন অফিস সহায়ক তাজুল ইসলাম।
এই সংবাদ প্রকাশের আগ পর্যন্ত অবৈধ পন্থায় সম্পদ অর্জনের কথা অস্বীকার করেন অফিস সহায়ক তাজুল ইসলাম।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

শ্যামপুর-সাবরেজিষ্ট্রি অফিসে কোটিপতি পিয়ন ! দুদকে অভিযোগ

আপলোড সময় : ১১:০৫:০২ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ নভেম্বর ২০২৩

কোটিপতি পিয়ন হিসেবে পরিচিত রাজধানীর শ্যামপুর সাব-রেজিস্ট্রি কার্যালয়ের অফিস সহায়ক মো. তাজুল ইসলামের বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে। প্রতিনিয়ত অনুসন্ধানে বেরিয়ে আসে তার নানা অনিয়ম দুর্নীতি। অনিয়ম আর দুর্নীতির আকরার গডফাদার এই অফিস সহায়ক তার সিন্ডিকেটে সাব-রেজিস্ট্রি কার্যালয়ের সব অফিসারদের সেবা গ্রহীতাকে জিম্মি করে নিজেদের নিয়ম মত কাজ করতে বাধ্য করে।
গত ২৮ নভেম্বর মোরশেদ আলম নামে এক ব্যক্তি একটি মানবাধিকার সংস্থার প্যাডে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) এ লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

অভিযোগ সুত্রে যানাযায়, সাব-রেজিস্ট্রি কার্যালয়ে তার নেতৃত্বে গড়ে উঠেছে একটি শক্তিশালী সিন্ডিকেট তাদের কথা মত কাজ না করলে নানা জটিলতা তৈরি করে সেবা গ্রহীতাদের হয়রানি করার অভিযোগ রেয়েছে বহু আগে থেকেই, শুধু সেবা গ্রহীতারাই নয় খোদ অফিসের উর্ধতন কর্মকর্তারা কথা মত কাজ না করলে কর্মস্থল থেকে বিতাড়িত হন। বিলাসবহুল রাজকীয় জীবন যাপনে অভস্থ কোটিপতি পিয়ন মোরশেদ আলম।

অনুসন্ধানের যানাযায়, কদমতলী থানা এলাকায় মেরাজ নগরে রয়েছে তার ১২ তলা একটি ভবন এই ভবনটি চারজন অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে গড়ে তুলছেন বলে যানান এলাকা বাসী এছাড়াও ডেমরা থানাধীন ৭০ নং ওয়ার্ড মস্তমাঝি এলাকায় রয়েছে তার আরো ১০ কাঠা জমি।
তবে এই সংবাদ প্রকাশের আগ পর্যন্ত অবৈধ পন্থায় সম্পদ অর্জনের কথা অস্বীকার করেন অফিস সহায়ক তাজুল ইসলাম।
এই সংবাদ প্রকাশের আগ পর্যন্ত অবৈধ পন্থায় সম্পদ অর্জনের কথা অস্বীকার করেন অফিস সহায়ক তাজুল ইসলাম।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন