ঢাকা ০৭:০৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কেরানীগঞ্জে পহেলা বৈশাখে বন্ধুর সাথে ঘুরতে এসে গনধর্ষণের স্বীকার, গ্রেফতার ০৫

মো: শাহিন (নিজস্ব প্রতিবেদক)
মো: শাহিন (নিজস্ব প্রতিবেদক)
  • আপলোড সময় : ০৮:১২:১৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪
  • / ৪১১ বার পড়া হয়েছে

ঢাকার কেরানীগঞ্জে ঘাটারচর মধুসিটি এলাকায় পহেলা বৈশাখে বন্ধুর সাথে ঘুরতে এসে নাদিয়া আক্তার নামে এক তরুণী গনধর্ষণের মামলায় পাঁচজনকে গ্রেফতার করেছে কেরানীগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, মিলন (২৩), মোঃ মাসুম (২৫), শহিদুল ইসলাম (২১), মোঃ রাহাত (১৮) ও মোঃ সোহাগ আলম (২০)। আজ বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) বিকাল ৫ টায় এতথ্য নিশ্চিত করেন কেরানীগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহাবুদ্দিন কবীর।

তিনি বলেন, গত (১৪এপ্রিল) বিকেলে পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে নাদিয়া আক্তার তার বন্ধু সিজান ও রিজভী কে নিয়ে কেরাণীগঞ্জের ঘাটারচরে মধুসিটিতে ঘুরতে আসে। হাউজিংয়ের ভিতর ফাঁকা জায়গায় বসে নাদিয়া তার বন্ধুদের সাথে ছবি তোলার সময় অজ্ঞাতনামা ৫/৭ জন বিভিন্ন ধরণের প্রশ্ন করতে থাকে। একপর্যায়ে রাত আনুমানিক সাড়ে ৭টার দিকে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিরা নাদিয়া ও তার বন্ধুদের টানা হেচড়া করে হাউজিংয়ের আরও ভিতরে ফাঁকা জায়গায় নিয়ে সিজান ও রিজভীকে আটক করে এলোপাথারী কিলঘুষি ও লাথি মেরে বিভিন্ন স্থানে জখম করে। পরবর্তীতে তারা নাদিয়াকে জোরপূর্বক হাউজিংয়ের ইটের সীমানা প্রাচীর বেষ্ঠিত প্লটের বাউন্ডারির ভিতরে নিয়ে যায়। প্রথমে তিনজন নাদিয়াকে জোরপূর্বক পালাক্রমে ধর্ষণ করে এবং বাহিরে অন্যান্যরা পাহারা দিতে থাকে। পরবর্তীতে ধর্ষণকারীরা নাদিয়া ও তার বন্ধুদের কাছে থাকা নগদ টাকা ও মোবাইলফোন নিয়ে যায় এবং কাউকে জানাইলে ক্ষতি করার হুমকি দিয়ে ঘটনাস্থল হতে চলে যায়।

শাহাবুদ্দিন কবীর আরও বলেন, উক্ত গণধর্ষণের ঘটনায় ১৫ এপ্রিল সকালে নাদিয়া আক্তার বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ধর্ষণকারীদের বিরুদ্ধে কেরাণীগঞ্জ মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা রুজুর পর ঘটনার রহস্য উদঘাটন ও ঘটনায় জড়িত আসামীদের দ্রুত গ্রেফতারে একটি চৌকষ আভিযানিক দল তথ্য-প্রযুক্তির সর্বোত্তম প্রয়োগ করে পাঁচজন আসামিকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃতরা উক্ত গণধর্ষণের ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

কেরানীগঞ্জে পহেলা বৈশাখে বন্ধুর সাথে ঘুরতে এসে গনধর্ষণের স্বীকার, গ্রেফতার ০৫

আপলোড সময় : ০৮:১২:১৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪

ঢাকার কেরানীগঞ্জে ঘাটারচর মধুসিটি এলাকায় পহেলা বৈশাখে বন্ধুর সাথে ঘুরতে এসে নাদিয়া আক্তার নামে এক তরুণী গনধর্ষণের মামলায় পাঁচজনকে গ্রেফতার করেছে কেরানীগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, মিলন (২৩), মোঃ মাসুম (২৫), শহিদুল ইসলাম (২১), মোঃ রাহাত (১৮) ও মোঃ সোহাগ আলম (২০)। আজ বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) বিকাল ৫ টায় এতথ্য নিশ্চিত করেন কেরানীগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শাহাবুদ্দিন কবীর।

তিনি বলেন, গত (১৪এপ্রিল) বিকেলে পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে নাদিয়া আক্তার তার বন্ধু সিজান ও রিজভী কে নিয়ে কেরাণীগঞ্জের ঘাটারচরে মধুসিটিতে ঘুরতে আসে। হাউজিংয়ের ভিতর ফাঁকা জায়গায় বসে নাদিয়া তার বন্ধুদের সাথে ছবি তোলার সময় অজ্ঞাতনামা ৫/৭ জন বিভিন্ন ধরণের প্রশ্ন করতে থাকে। একপর্যায়ে রাত আনুমানিক সাড়ে ৭টার দিকে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিরা নাদিয়া ও তার বন্ধুদের টানা হেচড়া করে হাউজিংয়ের আরও ভিতরে ফাঁকা জায়গায় নিয়ে সিজান ও রিজভীকে আটক করে এলোপাথারী কিলঘুষি ও লাথি মেরে বিভিন্ন স্থানে জখম করে। পরবর্তীতে তারা নাদিয়াকে জোরপূর্বক হাউজিংয়ের ইটের সীমানা প্রাচীর বেষ্ঠিত প্লটের বাউন্ডারির ভিতরে নিয়ে যায়। প্রথমে তিনজন নাদিয়াকে জোরপূর্বক পালাক্রমে ধর্ষণ করে এবং বাহিরে অন্যান্যরা পাহারা দিতে থাকে। পরবর্তীতে ধর্ষণকারীরা নাদিয়া ও তার বন্ধুদের কাছে থাকা নগদ টাকা ও মোবাইলফোন নিয়ে যায় এবং কাউকে জানাইলে ক্ষতি করার হুমকি দিয়ে ঘটনাস্থল হতে চলে যায়।

শাহাবুদ্দিন কবীর আরও বলেন, উক্ত গণধর্ষণের ঘটনায় ১৫ এপ্রিল সকালে নাদিয়া আক্তার বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ধর্ষণকারীদের বিরুদ্ধে কেরাণীগঞ্জ মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা রুজুর পর ঘটনার রহস্য উদঘাটন ও ঘটনায় জড়িত আসামীদের দ্রুত গ্রেফতারে একটি চৌকষ আভিযানিক দল তথ্য-প্রযুক্তির সর্বোত্তম প্রয়োগ করে পাঁচজন আসামিকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃতরা উক্ত গণধর্ষণের ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন