ঢাকা ০৩:১৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নির্ধারিত দামে বিক্রি হচ্ছে না ডিম, আলু ও পেঁয়াজ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপলোড সময় : ০৪:৩৬:৩৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ২৭৮ বার পড়া হয়েছে

সরকারের বেধে দেওয়া দামে বাজারে বিক্রি হচ্ছে না তিন নিত্যপণ্য ডিম, আলু ও পেঁয়াজ। খুচরা বাজারে এক কেজি আলু বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকায়। পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকায় এবং ডিম বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা হালি।
রোববার (১৭ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।

অথচ প্রতি পিস ডিম ১২ টাকা, প্রতি কেজি আলু ৩৫ থেকে ৩৬ টাকা এবং পেঁয়াজ ৬৪ থেকে ৬৫ টাকা বিক্রির দাম নির্ধারণ করে দিয়েছে সরকার। সরকারি এ আদেশ না মেনে বেশি দামে পণ্য বিক্রি করায় ক্ষোভ জানিয়েছেন ক্রেতারা।

বিক্রেতারা বলছেন, বেশি দামে কিনে আনার কারণে তারা এই দামে পণ্য বিক্রি করতে হচ্ছে।

এদিকে প্রতিদিন বাজার নিয়ন্ত্রণে ভোক্তা সংরক্ষণ অধিদপ্তর অভিযান চালাচ্ছে। এদিন দুপুরে রাজধানীর ট্যানারি বাজারে অভিযান চালিয়ে দুই প্রতিষ্ঠানকে ২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এ সময় সরকারের নির্ধারিত দামে পণ্য বিক্রি করতে আহ্বান জানান ভোক্তা সংরক্ষণ অধিদপ্তরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

এর আগে, শনিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) নিউমার্কেটের বনলতা কাঁচাবাজার ও মোহাম্মদপুরের টাউন হল কাঁচাবাজারে অভিযান চালিয়ে তিন প্রতিষ্ঠানকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করে অধিদপ্তর।

ডিমের দাম বেশি রাখা, ক্রয় রসিদ না থাকা এবং মূল্যতালিকা প্রদর্শন না করায় প্রতিষ্ঠানগুলোকে জরিমানা করা হয়। প্রতিষ্ঠানগুলো হলো বনলতা কাঁচাবাজারের জনপ্রিয় এন্টারপ্রাইজ, ফাতেমা ট্রেডার্স এবং টাউন হল কাঁচাবাজারের মিজানের ডিমের দোকান।

এর আগে, বৃহস্পতিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেন, প্রতি পিস ডিমের দাম ১২ টাকা নির্ধারণ করেছে সরকার। একই সঙ্গে ডিম আমদানির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। প্রথমে অল্প পরিমাণে আমদানি করা হবে। এরপরও যদি দাম না নিয়ন্ত্রণে থাকে তাহলে ব্যাপক আকারে আমদানি করা হবে।

তিনি বলেন, পেঁয়াজ ও আলুর দাম নির্ধারণ করে দিয়েছে সরকার। ভোক্তা পর্যায়ে আলুর দাম হবে ৩৫ থেকে ৩৬ টাকা। আর পেঁয়াজের দাম ৬৪ থেকে ৬৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

বাণিজ্যমন্ত্রী জানান, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর বিকেল থেকেই অভিযানে নামবে। তারা মাঠে থেকে এটি মনিটরিং করবেন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

নির্ধারিত দামে বিক্রি হচ্ছে না ডিম, আলু ও পেঁয়াজ

আপলোড সময় : ০৪:৩৬:৩৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২৩

সরকারের বেধে দেওয়া দামে বাজারে বিক্রি হচ্ছে না তিন নিত্যপণ্য ডিম, আলু ও পেঁয়াজ। খুচরা বাজারে এক কেজি আলু বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকায়। পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকায় এবং ডিম বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা হালি।
রোববার (১৭ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে।

অথচ প্রতি পিস ডিম ১২ টাকা, প্রতি কেজি আলু ৩৫ থেকে ৩৬ টাকা এবং পেঁয়াজ ৬৪ থেকে ৬৫ টাকা বিক্রির দাম নির্ধারণ করে দিয়েছে সরকার। সরকারি এ আদেশ না মেনে বেশি দামে পণ্য বিক্রি করায় ক্ষোভ জানিয়েছেন ক্রেতারা।

বিক্রেতারা বলছেন, বেশি দামে কিনে আনার কারণে তারা এই দামে পণ্য বিক্রি করতে হচ্ছে।

এদিকে প্রতিদিন বাজার নিয়ন্ত্রণে ভোক্তা সংরক্ষণ অধিদপ্তর অভিযান চালাচ্ছে। এদিন দুপুরে রাজধানীর ট্যানারি বাজারে অভিযান চালিয়ে দুই প্রতিষ্ঠানকে ২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এ সময় সরকারের নির্ধারিত দামে পণ্য বিক্রি করতে আহ্বান জানান ভোক্তা সংরক্ষণ অধিদপ্তরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

এর আগে, শনিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) নিউমার্কেটের বনলতা কাঁচাবাজার ও মোহাম্মদপুরের টাউন হল কাঁচাবাজারে অভিযান চালিয়ে তিন প্রতিষ্ঠানকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করে অধিদপ্তর।

ডিমের দাম বেশি রাখা, ক্রয় রসিদ না থাকা এবং মূল্যতালিকা প্রদর্শন না করায় প্রতিষ্ঠানগুলোকে জরিমানা করা হয়। প্রতিষ্ঠানগুলো হলো বনলতা কাঁচাবাজারের জনপ্রিয় এন্টারপ্রাইজ, ফাতেমা ট্রেডার্স এবং টাউন হল কাঁচাবাজারের মিজানের ডিমের দোকান।

এর আগে, বৃহস্পতিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেন, প্রতি পিস ডিমের দাম ১২ টাকা নির্ধারণ করেছে সরকার। একই সঙ্গে ডিম আমদানির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। প্রথমে অল্প পরিমাণে আমদানি করা হবে। এরপরও যদি দাম না নিয়ন্ত্রণে থাকে তাহলে ব্যাপক আকারে আমদানি করা হবে।

তিনি বলেন, পেঁয়াজ ও আলুর দাম নির্ধারণ করে দিয়েছে সরকার। ভোক্তা পর্যায়ে আলুর দাম হবে ৩৫ থেকে ৩৬ টাকা। আর পেঁয়াজের দাম ৬৪ থেকে ৬৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

বাণিজ্যমন্ত্রী জানান, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর বিকেল থেকেই অভিযানে নামবে। তারা মাঠে থেকে এটি মনিটরিং করবেন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন