ঢাকা ০৪:৩২ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আড়াইহাজারে শিশু ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় একজনের মৃত্যুদন্ড

রফিকুল ইসলাম রানা (নিজস্ব প্রতিবেদক)
রফিকুল ইসলাম রানা (নিজস্ব প্রতিবেদক)
  • আপলোড সময় : ০৪:০২:৩৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৩৫৩ বার পড়া হয়েছে

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে শিশু ধর্ষণ ও হত্যার অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায়
একজনকে মৃত্যুদন্ড দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল আদালত। সোমবার ওই আদালতের বিচারক নাজমুল হক শ্যামল আসামী মোঃ নাইমুর রহমানের উপস্থিতিতে এ রায় প্রদান করেন। এ ছাড়া লাশ গুম করার কারণে তাকে ৫ বছরের সশ্রম কারাদন্ড এবং সেই সাথে অর্থ দন্ডের আদেশ দেন আদালত।দন্ডপ্রাপ্ত নাইমুর রহমান বরগুনা জেলার লতাবাড়িয়া এলাকার মোঃ আব্দুল
জব্বারের ছেলে।

রায়ের সত্যতা নিশ্চিৎ করে আদালত পুলিশের পরিদর্শক আসাদুজ্জামান বলেন,
২০২১ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর আড়াইহাজার থানায় মামলাটি দায়ের করা হয়েছিল।
আদালতের সরকার পক্ষের কৌসুলি (পিপি) অ্যাডভোকেট রকিবউদ্দিন আহাম্মেদ রকিব
বলেন, ২০২১ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর দন্ডপ্রাপ্ত আসামী আড়াইহাজার থানার পুরিন্দা বড়বাড়ি এলাকার জনৈক নান্নুর বাড়ীতে ভাড়া বাসায় থাকা কালে পাশের বাড়ীর লিজা আক্তার (৬) নামে এক শিশুকে আইসক্রীম ও চকলেট খাওয়ানোর প্রলোভন দেখিয়ে তার ভাড়া বাসায় ডেকে নিয়ে বলপূর্বক ধর্ষণ ও হত্যা করে লাশ কাঁথা দিয়ে মুড়িয়ে চৌকির নিচে লুকিয়ে রাখে। পরে পরিবারের লোকজন সন্দেহ বশত
নাইমুর রহমানের ঘর তল্লাশী করে চৌকির নিচ থেকে লিজার লাশ বের করে। এ ব্যাপারে ভিকটিমের পিতা বাদী হয়ে ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ ধর্ষণ ও হত্যার অভিযোগে মামলাটি দায়ের করেন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

আড়াইহাজারে শিশু ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় একজনের মৃত্যুদন্ড

আপলোড সময় : ০৪:০২:৩৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে শিশু ধর্ষণ ও হত্যার অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায়
একজনকে মৃত্যুদন্ড দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল আদালত। সোমবার ওই আদালতের বিচারক নাজমুল হক শ্যামল আসামী মোঃ নাইমুর রহমানের উপস্থিতিতে এ রায় প্রদান করেন। এ ছাড়া লাশ গুম করার কারণে তাকে ৫ বছরের সশ্রম কারাদন্ড এবং সেই সাথে অর্থ দন্ডের আদেশ দেন আদালত।দন্ডপ্রাপ্ত নাইমুর রহমান বরগুনা জেলার লতাবাড়িয়া এলাকার মোঃ আব্দুল
জব্বারের ছেলে।

রায়ের সত্যতা নিশ্চিৎ করে আদালত পুলিশের পরিদর্শক আসাদুজ্জামান বলেন,
২০২১ সালের ২৪ সেপ্টেম্বর আড়াইহাজার থানায় মামলাটি দায়ের করা হয়েছিল।
আদালতের সরকার পক্ষের কৌসুলি (পিপি) অ্যাডভোকেট রকিবউদ্দিন আহাম্মেদ রকিব
বলেন, ২০২১ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর দন্ডপ্রাপ্ত আসামী আড়াইহাজার থানার পুরিন্দা বড়বাড়ি এলাকার জনৈক নান্নুর বাড়ীতে ভাড়া বাসায় থাকা কালে পাশের বাড়ীর লিজা আক্তার (৬) নামে এক শিশুকে আইসক্রীম ও চকলেট খাওয়ানোর প্রলোভন দেখিয়ে তার ভাড়া বাসায় ডেকে নিয়ে বলপূর্বক ধর্ষণ ও হত্যা করে লাশ কাঁথা দিয়ে মুড়িয়ে চৌকির নিচে লুকিয়ে রাখে। পরে পরিবারের লোকজন সন্দেহ বশত
নাইমুর রহমানের ঘর তল্লাশী করে চৌকির নিচ থেকে লিজার লাশ বের করে। এ ব্যাপারে ভিকটিমের পিতা বাদী হয়ে ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ ধর্ষণ ও হত্যার অভিযোগে মামলাটি দায়ের করেন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন