ঢাকা ০৮:৫১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সিদ্ধিরগঞ্জে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের অর্থায়নে নির্মিত নাগিনা জোহা সড়ক এখন মরণ ফাঁদ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপলোড সময় : ০৬:০৪:২৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৭৮৩ বার পড়া হয়েছে

সিদ্ধিরগঞ্জে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের অর্থায়নে নির্মিত নাগিনা জোহা সড়ক এখন মরণ ফাঁদ। নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে পুরাতন রেল লাইনে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের অর্থায়নে নির্মিত নাগিনা জোহা সড়কের নিচ দিয়ে ড্রেজারের পাইপ স্থাপন করায় মরণ ফাঁদে পরিনত হয়েছে। সিদ্ধিরগঞ্জ থানা যুবলীগের আহবায়ক ও নাসিক ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতি দীর্ঘদিন যাবৎ এই অবৈধ ড্রেজারের মাধ্যমে বালুর ব্যবসা পরিচালনা করছে।
কাউন্সিলর মতির নির্দেশে তার সহযোগী মানিক মাস্টার, জোবায়ের আহমেদ মনসুর, আক্তার ওরফে পানি আক্তার, রাব্বি ও গিটার সেলিম গংরা এই ব্যবসা পরিচালনা করছে বলে জানায় স্থানীয়রা।

এদিকে সোমবার দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সুমিলপাড়া মুনলাইট সিনেমা হলের পেছনে নব-নির্মিত নাগিনা জোহা সড়কের নিচ দিয়ে ড্রেজারের পাইপ স্থাপন করা হয়েছে। ড্রেজারের পাইপ লিক হয়ে পানির স্পিটে সড়কের পিচের কংক্রিট ভেঙে সড়কের এক পাশ দিয়ে যানবাহন চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। ভেঙে যাওয়া পিচের কংক্রিট (পাথর, বালু ও পিচ মিশ্রিত অবস্থা) সড়কের এক পাশে স্তুপাকারে জমা করে রাখা হয়েছে।
এমতাবস্থায় গত রবিবার রাতে নারায়গঞ্জ থেকে পেশাগত কাজ শেষে সিদ্ধিরগঞ্জে বাসায় ফেরার পথে স্তুপাকৃত ঐ কংক্রিটের সাথে ধাক্কা লেগে মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে মারাত্মক সড়ক দুর্ঘটনার শিকার হয়েছেন আমাদের নতুন সময়ের ষ্টাফ রিপোর্টার মোশতাক আহমেদ শাওন। বর্তমানে তিনি নারায়ণগঞ্জের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

এ ঘটনা ছাড়াও ঐ স্থানে প্রায়ই ছোট-বড় অসংখ্য যানবাহন দুর্ঘটনায় সাধারণ মানুষ আহত হচ্ছে। স্থানীয়দের অভিযোগ, স্থানীয় প্রভাবশালী ব্যক্তিরা রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে অবৈধভাবে ৬নং ও ৭নং ওয়ার্ডে ড্রেজারের মাধ্যমে বালুর ব্যবসা পরিচালনা করছে। মতি ও তার সহযোগীরা প্রভাব খাটিয়ে সাধারণ মানুষকে জিম্মি করে বাসা-বাড়ি ও রাস্তা-ঘাটের উপরদিয়ে জোরপূর্বক ড্রেজারের পাইপ স্থাপন করেছে। তাদের এই ড্রেজারের পাইপের কারণে প্রায়ই জনসাধারণ ও যানবাহন দুর্ঘটনার শিকার হয়ে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। পথচারীরা নির্বিঘেন্নে চলাচল করতে বাধাগ্রস্থ হচ্ছে।

কোটি টাকার সড়ক নষ্ট করে মতি ও তার সহযোগীরা আর্থিক লাভের জন্য এই ব্যবসা করছে বলেও অভিযোগ স্থানীয়দের। এর ফলে জনগনের উপকার হওয়ার বিপরীতে ক্ষতিই হচ্ছে বেশি। মতি জনপ্রতিনিধি হয়ে জনগণের রক্ষক হয়ে ভক্ষকের ভূমিকা পালন করছে।নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নাসিক ৬নং ওয়ার্ডের একাধিক ব্যক্তি জানায়, মতি এককভাবে রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে ৬নং ওয়ার্ডের সকল সেক্টর নিয়ন্ত্রণ করছেন। তার হয়ে একাধিক সন্ত্রাসী বাহিনী কাজ করছে। তাদের দিয়ে আদমজী ইপিজেড, অবৈধ ড্রেজার, জমি দখল, তেল চুরি, মাদক ব্যবসা, মারামারি সহ সকল সন্ত্রাসী কর্মকান্ড পরিচালনা করা হয়।

তার এই বাহিনীর সকল সদস্যদের বিরুদ্ধে থানায় একাধিক মামলা ও অভিযোগ রয়েছে।সিদ্ধিরগঞ্জ থানা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক জোবায়ের আহম্মেদ মনসুর বলেন, আমি আগে এই ড্রেজারের সাথে সম্পৃক্ত ছিলাম।এখন নেই। বর্তমানে কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতি ও মানিক মাষ্টার নিয়ন্ত্রণ করছেন বলে জানান তিনি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা যুবলীগের আহবায়ক ও নাসিক ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতি মুঠোফোনে জানান, এই বালু ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশের প্রজেক্টে যাচ্ছে। খুলনার টিটু নামের এক ব্যাক্তি এই ড্রেজারের ব্যবসা করছে।সিটি করপোরেশনের রাস্তার উপরে ড্রেজারের পাইপ বসানোর বিষয়ে জানতে চাইলে কাউন্সিলর আরও জানান এটা মেয়রকে জিজ্ঞেস করেন। আমি জানি না।

আপনি নাকি এই ড্রেজারের মাধ্যমে বালুর ব্যবসা করছেন জানতে চাইলে এক প্রকার ক্ষিপ্ত হয়ে মতি বলেন আপনি বেশি বাড়াবাড়ি করছেন। আমার বিরুদ্ধে উল্টা-পাল্টা সংবাদ প্রকাশ করলে মামলা করার হুমকি দেন।এ বিষয়ে সড়ক ও জনপথ (সওজ) অধিদপ্তরের নারায়ণগঞ্জ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী শাহানা ফেরদৌস বলেন, বর্তমানে রাস্তাটির নির্মাণ কাজ শেষ।ঠিকাদারসহ সকলকে বিল পরিশোধ করা হয়েছে। এরই মধ্যে রাস্তাটির নিচ দিয়ে ড্রেজারের পাইপ বসিয়ে রাস্তাটিকে ক্ষতিগ্রস্থ করা হয়েছে এটা বন্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

সিদ্ধিরগঞ্জে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের অর্থায়নে নির্মিত নাগিনা জোহা সড়ক এখন মরণ ফাঁদ

আপলোড সময় : ০৬:০৪:২৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩

সিদ্ধিরগঞ্জে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের অর্থায়নে নির্মিত নাগিনা জোহা সড়ক এখন মরণ ফাঁদ। নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে পুরাতন রেল লাইনে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের অর্থায়নে নির্মিত নাগিনা জোহা সড়কের নিচ দিয়ে ড্রেজারের পাইপ স্থাপন করায় মরণ ফাঁদে পরিনত হয়েছে। সিদ্ধিরগঞ্জ থানা যুবলীগের আহবায়ক ও নাসিক ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতি দীর্ঘদিন যাবৎ এই অবৈধ ড্রেজারের মাধ্যমে বালুর ব্যবসা পরিচালনা করছে।
কাউন্সিলর মতির নির্দেশে তার সহযোগী মানিক মাস্টার, জোবায়ের আহমেদ মনসুর, আক্তার ওরফে পানি আক্তার, রাব্বি ও গিটার সেলিম গংরা এই ব্যবসা পরিচালনা করছে বলে জানায় স্থানীয়রা।

এদিকে সোমবার দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সুমিলপাড়া মুনলাইট সিনেমা হলের পেছনে নব-নির্মিত নাগিনা জোহা সড়কের নিচ দিয়ে ড্রেজারের পাইপ স্থাপন করা হয়েছে। ড্রেজারের পাইপ লিক হয়ে পানির স্পিটে সড়কের পিচের কংক্রিট ভেঙে সড়কের এক পাশ দিয়ে যানবাহন চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। ভেঙে যাওয়া পিচের কংক্রিট (পাথর, বালু ও পিচ মিশ্রিত অবস্থা) সড়কের এক পাশে স্তুপাকারে জমা করে রাখা হয়েছে।
এমতাবস্থায় গত রবিবার রাতে নারায়গঞ্জ থেকে পেশাগত কাজ শেষে সিদ্ধিরগঞ্জে বাসায় ফেরার পথে স্তুপাকৃত ঐ কংক্রিটের সাথে ধাক্কা লেগে মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে মারাত্মক সড়ক দুর্ঘটনার শিকার হয়েছেন আমাদের নতুন সময়ের ষ্টাফ রিপোর্টার মোশতাক আহমেদ শাওন। বর্তমানে তিনি নারায়ণগঞ্জের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

এ ঘটনা ছাড়াও ঐ স্থানে প্রায়ই ছোট-বড় অসংখ্য যানবাহন দুর্ঘটনায় সাধারণ মানুষ আহত হচ্ছে। স্থানীয়দের অভিযোগ, স্থানীয় প্রভাবশালী ব্যক্তিরা রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে অবৈধভাবে ৬নং ও ৭নং ওয়ার্ডে ড্রেজারের মাধ্যমে বালুর ব্যবসা পরিচালনা করছে। মতি ও তার সহযোগীরা প্রভাব খাটিয়ে সাধারণ মানুষকে জিম্মি করে বাসা-বাড়ি ও রাস্তা-ঘাটের উপরদিয়ে জোরপূর্বক ড্রেজারের পাইপ স্থাপন করেছে। তাদের এই ড্রেজারের পাইপের কারণে প্রায়ই জনসাধারণ ও যানবাহন দুর্ঘটনার শিকার হয়ে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। পথচারীরা নির্বিঘেন্নে চলাচল করতে বাধাগ্রস্থ হচ্ছে।

কোটি টাকার সড়ক নষ্ট করে মতি ও তার সহযোগীরা আর্থিক লাভের জন্য এই ব্যবসা করছে বলেও অভিযোগ স্থানীয়দের। এর ফলে জনগনের উপকার হওয়ার বিপরীতে ক্ষতিই হচ্ছে বেশি। মতি জনপ্রতিনিধি হয়ে জনগণের রক্ষক হয়ে ভক্ষকের ভূমিকা পালন করছে।নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নাসিক ৬নং ওয়ার্ডের একাধিক ব্যক্তি জানায়, মতি এককভাবে রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে ৬নং ওয়ার্ডের সকল সেক্টর নিয়ন্ত্রণ করছেন। তার হয়ে একাধিক সন্ত্রাসী বাহিনী কাজ করছে। তাদের দিয়ে আদমজী ইপিজেড, অবৈধ ড্রেজার, জমি দখল, তেল চুরি, মাদক ব্যবসা, মারামারি সহ সকল সন্ত্রাসী কর্মকান্ড পরিচালনা করা হয়।

তার এই বাহিনীর সকল সদস্যদের বিরুদ্ধে থানায় একাধিক মামলা ও অভিযোগ রয়েছে।সিদ্ধিরগঞ্জ থানা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক জোবায়ের আহম্মেদ মনসুর বলেন, আমি আগে এই ড্রেজারের সাথে সম্পৃক্ত ছিলাম।এখন নেই। বর্তমানে কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতি ও মানিক মাষ্টার নিয়ন্ত্রণ করছেন বলে জানান তিনি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা যুবলীগের আহবায়ক ও নাসিক ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতি মুঠোফোনে জানান, এই বালু ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশের প্রজেক্টে যাচ্ছে। খুলনার টিটু নামের এক ব্যাক্তি এই ড্রেজারের ব্যবসা করছে।সিটি করপোরেশনের রাস্তার উপরে ড্রেজারের পাইপ বসানোর বিষয়ে জানতে চাইলে কাউন্সিলর আরও জানান এটা মেয়রকে জিজ্ঞেস করেন। আমি জানি না।

আপনি নাকি এই ড্রেজারের মাধ্যমে বালুর ব্যবসা করছেন জানতে চাইলে এক প্রকার ক্ষিপ্ত হয়ে মতি বলেন আপনি বেশি বাড়াবাড়ি করছেন। আমার বিরুদ্ধে উল্টা-পাল্টা সংবাদ প্রকাশ করলে মামলা করার হুমকি দেন।এ বিষয়ে সড়ক ও জনপথ (সওজ) অধিদপ্তরের নারায়ণগঞ্জ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী শাহানা ফেরদৌস বলেন, বর্তমানে রাস্তাটির নির্মাণ কাজ শেষ।ঠিকাদারসহ সকলকে বিল পরিশোধ করা হয়েছে। এরই মধ্যে রাস্তাটির নিচ দিয়ে ড্রেজারের পাইপ বসিয়ে রাস্তাটিকে ক্ষতিগ্রস্থ করা হয়েছে এটা বন্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন