ঢাকা ০৭:৪২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আড়াইহাজারে কিস্তির চাপে আরও একজনের আত্মহত্যা, এক যুবকের কিডনি বিক্রির চেষ্টা!

রফিকুল ইসলাম রানা (নিজস্ব প্রতিবেদক)
রফিকুল ইসলাম রানা (নিজস্ব প্রতিবেদক)
  • আপলোড সময় : ১১:৫৯:০৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ২ অক্টোবর ২০২৩
  • / ৪৪৯ বার পড়া হয়েছে

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে আবার ও এনজিও প্রতিষ্ঠান থেকে তোলা্ ঋণের কিস্তি ও ব্যাক্তিগত ঋণের চাপে এক যুবক গলায় ফাঁস লাগিয়ে
আত্মহত্যা করেছেন।ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার দিবাগত রাতে।
নিহতের নাম শরিফ (২২)। তিনি উপজেলার হাইজাদী ইউনিয়নের নারান্দী গ্রামের সেলিম মিয়ার পুত্র। এর আগে গত ২৪ জুলাই রাসেল (৩৫) নামে একই ইউনিয়নের দড়িসিঙ্গারপুর কলাগাছিয়া গ্রামের এক যুবক কিস্তির চাপ সইতে না পেরে নিরুপায় হয়ে বিষাক্ত ট্যাবলেট খেয়ে
আত্মহত্যা করেছেন। অপর এক যুবক কিস্তির টাকা পরিশোধ করতে না পেরে আর কোন উপায় না থাকায় তার একটি কিডনি বিক্রি করবেন
বলে জানিয়েছেন। তবে তিনি তার নাম পরিচয় গোপন রাখার জন্য অনুরোধ করেছেন।
এলাকাবাসি জানায়, আড়াইহাজারের সর্বত্র বিভিন্ন এনজিও প্রতিষ্ঠান কিস্তিতে টাকা পরিশোধের শর্তে দরিদ্র শ্রেণীর মানুষ
গুলোকে মোটা অংকের টাকা ঋণ দিয়ে থাকে। ঋণের টাকা তুলে কেউ কেউ কাজে লাগাতে পারলেও বেশির ভাগ লোকই টাকা গুলো নানা ভাবে খরচ করে ফেলে। ফলে ঠিক মত কিস্তির টাকা পরিশোধ করতে পারে না। প্রায় প্রতিদিনই কোন না কোন এনজিও প্রতিষ্ঠানের লোকজন
কিস্তির টাকার জন্য এসে বসে থাকে। কিন্তু প্রতিদিন বা প্রতি সপ্তাহে নিয়মিত কিস্তি পরিশোধ করার মত অবস্থা তাদের থাকে না। কিস্তি ওয়ালারাও নাছোরবান্দা। টাকা না নিয়ে যাবে না। এ কারণে বেশ কয়েকজন ঋণ গ্রহিতা এলাকা ছেড়ে নিরুদ্দেশ হয়ে গেছেন। তা
ছাড়া গত দু মাসের মধ্যে উল্লেখিত রাসেল ও শরীফ নামে দুজন আত্মহত্যা করেছেন।
এ ব্যাপারে আড়াইহাজার থানার ওসি মুহাম্মদ ইমদাদুল ইসলাম তৈয়ব জানান, শরীফের মৃত্যুর বিষয়ে থানায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

আড়াইহাজারে কিস্তির চাপে আরও একজনের আত্মহত্যা, এক যুবকের কিডনি বিক্রির চেষ্টা!

আপলোড সময় : ১১:৫৯:০৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ২ অক্টোবর ২০২৩

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে আবার ও এনজিও প্রতিষ্ঠান থেকে তোলা্ ঋণের কিস্তি ও ব্যাক্তিগত ঋণের চাপে এক যুবক গলায় ফাঁস লাগিয়ে
আত্মহত্যা করেছেন।ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার দিবাগত রাতে।
নিহতের নাম শরিফ (২২)। তিনি উপজেলার হাইজাদী ইউনিয়নের নারান্দী গ্রামের সেলিম মিয়ার পুত্র। এর আগে গত ২৪ জুলাই রাসেল (৩৫) নামে একই ইউনিয়নের দড়িসিঙ্গারপুর কলাগাছিয়া গ্রামের এক যুবক কিস্তির চাপ সইতে না পেরে নিরুপায় হয়ে বিষাক্ত ট্যাবলেট খেয়ে
আত্মহত্যা করেছেন। অপর এক যুবক কিস্তির টাকা পরিশোধ করতে না পেরে আর কোন উপায় না থাকায় তার একটি কিডনি বিক্রি করবেন
বলে জানিয়েছেন। তবে তিনি তার নাম পরিচয় গোপন রাখার জন্য অনুরোধ করেছেন।
এলাকাবাসি জানায়, আড়াইহাজারের সর্বত্র বিভিন্ন এনজিও প্রতিষ্ঠান কিস্তিতে টাকা পরিশোধের শর্তে দরিদ্র শ্রেণীর মানুষ
গুলোকে মোটা অংকের টাকা ঋণ দিয়ে থাকে। ঋণের টাকা তুলে কেউ কেউ কাজে লাগাতে পারলেও বেশির ভাগ লোকই টাকা গুলো নানা ভাবে খরচ করে ফেলে। ফলে ঠিক মত কিস্তির টাকা পরিশোধ করতে পারে না। প্রায় প্রতিদিনই কোন না কোন এনজিও প্রতিষ্ঠানের লোকজন
কিস্তির টাকার জন্য এসে বসে থাকে। কিন্তু প্রতিদিন বা প্রতি সপ্তাহে নিয়মিত কিস্তি পরিশোধ করার মত অবস্থা তাদের থাকে না। কিস্তি ওয়ালারাও নাছোরবান্দা। টাকা না নিয়ে যাবে না। এ কারণে বেশ কয়েকজন ঋণ গ্রহিতা এলাকা ছেড়ে নিরুদ্দেশ হয়ে গেছেন। তা
ছাড়া গত দু মাসের মধ্যে উল্লেখিত রাসেল ও শরীফ নামে দুজন আত্মহত্যা করেছেন।
এ ব্যাপারে আড়াইহাজার থানার ওসি মুহাম্মদ ইমদাদুল ইসলাম তৈয়ব জানান, শরীফের মৃত্যুর বিষয়ে থানায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন