ঢাকা ০৮:৩৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নিজের শিশু কন্যাকে ধর্ষণের অপরাধ ডেমরায় স্ত্রীর মামলায় স্বামী কারাগারে

মোঃ সালে আহমেদ (নিজস্ব প্রতিবেদক)
মোঃ সালে আহমেদ (নিজস্ব প্রতিবেদক)
  • আপলোড সময় : ০৪:০৪:১৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৫ অক্টোবর ২০২৩
  • / ২৯১ বার পড়া হয়েছে

রাজধানীর ডেমরায় নিজের ৮ বছরের শিশু কন্যাকে ধর্ষণের অপরাধে স্ত্রীর দায়ের করা মামলায় বুধবার বিকালে লম্পট স্বামীকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। অভিযুক্তের নাম মো. মহরম (৪৩)। মঙ্গলবার দিনগত রাতে ডেমরার সারুলিয়া দক্ষিণ টেংরা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে বুধবার আদালতে পাঠায় ডেমরা থানা পুলিশ। মহরম কিশোরগঞ্জের ভৈরব থানার ঘোড়াকান্দা এলাকার মৃত সুলতান মিয়ার ছেলে।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগীর মা মহরমের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার রাতেই ডেমরা থানায় মামলা করেন। এদিকে মেয়েটিকে বুধবার ঢামেক’র ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস (ওসিসি) সেন্টারে ভর্তি করেছে পুলিশ।

ভুক্তভোগীর বড় ভাই ও মায়ের বরাতে বিষয়টি নিশ্চিত করে ডেমরা থানার ওসি (তদন্ত) মো. ফারুক মোল্লা বলেন, শিশুটির মা কিরন গার্মেন্টকর্মী। এ সুযোগে পিতা মহরম দীর্ঘদিন যাবৎ নিজের মেয়েকেই যৌন হয়রানি করে আসছিলেন। গত ১ জুন মহরত তার স্ত্রীকে জানায় মেয়েটি ঘন ঘন প্রসাব করছে। এ ঘটনায় মা দেখেন মেয়ের প্রসাবের জায়গা দিয়ে রক্ত বের হচ্ছে। পরবর্তীতে গত ১৯ সেপ্টেম্বর মা মেয়েকে তার বাবার সাথে রুমে রেখে ছেলের সাথে বারান্দায় ঘুমিয়ে পড়েন। ওই রাতেই হঠাৎ মেয়ের চিৎকারের শব্দ শুনে মা কিরন মেয়ের কাছে আসেন। এ সময় ওই লম্পট কিরনকে হমকি ধমকি দিয়ে চুপ থাকতে বলে। পরের দিন সকালে মেয়েকে গোসল করানোর সময় কিরন বুঝতে পারে তার স্বামী মেয়েকেই ধর্ষণ করেছে। এদিকে গত ৪ মাস ধরে মেয়েটি একাধিকবার ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ বাদিনির।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

নিজের শিশু কন্যাকে ধর্ষণের অপরাধ ডেমরায় স্ত্রীর মামলায় স্বামী কারাগারে

আপলোড সময় : ০৪:০৪:১৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৫ অক্টোবর ২০২৩

রাজধানীর ডেমরায় নিজের ৮ বছরের শিশু কন্যাকে ধর্ষণের অপরাধে স্ত্রীর দায়ের করা মামলায় বুধবার বিকালে লম্পট স্বামীকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। অভিযুক্তের নাম মো. মহরম (৪৩)। মঙ্গলবার দিনগত রাতে ডেমরার সারুলিয়া দক্ষিণ টেংরা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে বুধবার আদালতে পাঠায় ডেমরা থানা পুলিশ। মহরম কিশোরগঞ্জের ভৈরব থানার ঘোড়াকান্দা এলাকার মৃত সুলতান মিয়ার ছেলে।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগীর মা মহরমের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার রাতেই ডেমরা থানায় মামলা করেন। এদিকে মেয়েটিকে বুধবার ঢামেক’র ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস (ওসিসি) সেন্টারে ভর্তি করেছে পুলিশ।

ভুক্তভোগীর বড় ভাই ও মায়ের বরাতে বিষয়টি নিশ্চিত করে ডেমরা থানার ওসি (তদন্ত) মো. ফারুক মোল্লা বলেন, শিশুটির মা কিরন গার্মেন্টকর্মী। এ সুযোগে পিতা মহরম দীর্ঘদিন যাবৎ নিজের মেয়েকেই যৌন হয়রানি করে আসছিলেন। গত ১ জুন মহরত তার স্ত্রীকে জানায় মেয়েটি ঘন ঘন প্রসাব করছে। এ ঘটনায় মা দেখেন মেয়ের প্রসাবের জায়গা দিয়ে রক্ত বের হচ্ছে। পরবর্তীতে গত ১৯ সেপ্টেম্বর মা মেয়েকে তার বাবার সাথে রুমে রেখে ছেলের সাথে বারান্দায় ঘুমিয়ে পড়েন। ওই রাতেই হঠাৎ মেয়ের চিৎকারের শব্দ শুনে মা কিরন মেয়ের কাছে আসেন। এ সময় ওই লম্পট কিরনকে হমকি ধমকি দিয়ে চুপ থাকতে বলে। পরের দিন সকালে মেয়েকে গোসল করানোর সময় কিরন বুঝতে পারে তার স্বামী মেয়েকেই ধর্ষণ করেছে। এদিকে গত ৪ মাস ধরে মেয়েটি একাধিকবার ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ বাদিনির।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন