ঢাকা ০৪:০৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সোনারগাঁয়ে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে নারী গ্রাম পুলিশকে পেটানোর অভিযোগ

মোঃ ফাহাদুল ইসলাম শরীফ (সোনারগাঁ প্রতিনিধি)
মোঃ ফাহাদুল ইসলাম শরীফ (সোনারগাঁ প্রতিনিধি)
  • আপলোড সময় : ১২:২৫:২১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ নভেম্বর ২০২৩
  • / ২৯৭ বার পড়া হয়েছে

নারায়ণগঞ্জ সোনারগাঁও উপজেলার বৈদ্যের বাজার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আল-আমিন সরকার বিরুদ্ধে একই ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের নারী গ্রাম পুলিশ শাহনাজ বেগম (৩২) কে মারধরের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের করবেন বলে ভুক্তভোগী দাবিদার ওই গ্রাম পুলিশ জানান।

বুধবার (১৫ নভেম্বর) উপজেলার বৈদ্যের বাজার ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্সে এ ঘটনা ঘটে বলে জানা যায়। ভুক্তভোগী শাহনাজ বেগম জানান, তিনি চার সন্তানের জননী । তিনি মহিলা গ্রাম পুলিশ। দীর্ঘ ১৮ বছর যাবত গ্রাম পুলিশের দায়িত্ব সুনামের সাথে পালন করে আসছেন। তার সহকর্মী নাসিমা আক্তারের অবৈধ সম্পর্কের প্রতিবাদ করায় নাসিমার ব্যক্তিগত আক্রোশের শিকার হন। ইউপি চেয়ারম্যান আল আমিন সরকারের ভাতিজি নাসিমা আক্তারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময় অবৈধ সম্পর্কের প্রতিবাদ করায় তাকে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে পরিষদের ভেতরে দরজা বন্ধ করে অশ্লীল ভাষায় গালমন্দ করে এলোপাতাড়ি মারধর করে ।

অসহায় নারী গ্রাম পুলিশ শাহনাজ আখতার বিচারের দাবিতে ইউপি সদস্য মনিরের কাছে ছুটে যান। ইউপি সদস্য মনির প্রাথমিক চিকিৎসা সেরে ওষুধপত্র দিয়ে তাকে বাড়িতে পাঠিয়ে দেন। গ্রাম পুলিশ শাহনাজ বেগম ছয় দিন যাবত চিকিৎসাধীন অবস্থায় মানবেতর জীবন-যাপন করছেন।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগীর মেয়ে মহিমা বেগম জানান , আমার মাকে মিথ্যে অপবাদ দিয়ে অশ্লীল ভাষায় গালমন্দ করে চেয়ারম্যান আল আমিন সরকার রোল দিয়ে পিটিয়ে বাম পায়ের কোমরের হাড্ডি ভেঙ্গে ফেলে । গ্রামবাসী আমার মার ব্যাপারে কোন বাজে মন্তব্য করতে পারবে না ইনশাল্লাহ আমি গর্বের সাথে বলতে পারব। আমার মাকে কেন চেয়ারম্যান সাহেব অহেতুক অশ্লীল ভাষায় গালমন্দ করে মারধর করলো আমি সকলের কাছে এর বিচার দাবি করছি।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত চেয়ারম্যান আল-আমিন সরকারের সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি মারধরের কথা স্বীকার করেন। তবে কেন মারধর করেছেন এ বিষয়ে তিনি সরাসরি এসে জানাবেন বলে জানান ।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

সোনারগাঁয়ে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে নারী গ্রাম পুলিশকে পেটানোর অভিযোগ

আপলোড সময় : ১২:২৫:২১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২০ নভেম্বর ২০২৩

নারায়ণগঞ্জ সোনারগাঁও উপজেলার বৈদ্যের বাজার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আল-আমিন সরকার বিরুদ্ধে একই ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের নারী গ্রাম পুলিশ শাহনাজ বেগম (৩২) কে মারধরের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের করবেন বলে ভুক্তভোগী দাবিদার ওই গ্রাম পুলিশ জানান।

বুধবার (১৫ নভেম্বর) উপজেলার বৈদ্যের বাজার ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্সে এ ঘটনা ঘটে বলে জানা যায়। ভুক্তভোগী শাহনাজ বেগম জানান, তিনি চার সন্তানের জননী । তিনি মহিলা গ্রাম পুলিশ। দীর্ঘ ১৮ বছর যাবত গ্রাম পুলিশের দায়িত্ব সুনামের সাথে পালন করে আসছেন। তার সহকর্মী নাসিমা আক্তারের অবৈধ সম্পর্কের প্রতিবাদ করায় নাসিমার ব্যক্তিগত আক্রোশের শিকার হন। ইউপি চেয়ারম্যান আল আমিন সরকারের ভাতিজি নাসিমা আক্তারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময় অবৈধ সম্পর্কের প্রতিবাদ করায় তাকে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে পরিষদের ভেতরে দরজা বন্ধ করে অশ্লীল ভাষায় গালমন্দ করে এলোপাতাড়ি মারধর করে ।

অসহায় নারী গ্রাম পুলিশ শাহনাজ আখতার বিচারের দাবিতে ইউপি সদস্য মনিরের কাছে ছুটে যান। ইউপি সদস্য মনির প্রাথমিক চিকিৎসা সেরে ওষুধপত্র দিয়ে তাকে বাড়িতে পাঠিয়ে দেন। গ্রাম পুলিশ শাহনাজ বেগম ছয় দিন যাবত চিকিৎসাধীন অবস্থায় মানবেতর জীবন-যাপন করছেন।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগীর মেয়ে মহিমা বেগম জানান , আমার মাকে মিথ্যে অপবাদ দিয়ে অশ্লীল ভাষায় গালমন্দ করে চেয়ারম্যান আল আমিন সরকার রোল দিয়ে পিটিয়ে বাম পায়ের কোমরের হাড্ডি ভেঙ্গে ফেলে । গ্রামবাসী আমার মার ব্যাপারে কোন বাজে মন্তব্য করতে পারবে না ইনশাল্লাহ আমি গর্বের সাথে বলতে পারব। আমার মাকে কেন চেয়ারম্যান সাহেব অহেতুক অশ্লীল ভাষায় গালমন্দ করে মারধর করলো আমি সকলের কাছে এর বিচার দাবি করছি।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত চেয়ারম্যান আল-আমিন সরকারের সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি মারধরের কথা স্বীকার করেন। তবে কেন মারধর করেছেন এ বিষয়ে তিনি সরাসরি এসে জানাবেন বলে জানান ।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন