ঢাকা ০২:০৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নতুন লুকে প্রশংসিত এডলফ খান

তন্ময় (নিজস্ব প্রতিবেদক)
তন্ময় (নিজস্ব প্রতিবেদক)
  • আপলোড সময় : ১১:০৩:৩৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ নভেম্বর ২০২৩
  • / ৫৫২ বার পড়া হয়েছে

মেক্সিকোর আধুনিক চিত্রকলার সবচেয়ে মেধাবী এবং গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিত্ত বলা হয় ফ্রিদা কাহলোকে। ১৯০৭ সালের ছয় জুলাই একটি মেয়ের জন্ম হয় ম্যাক্সিকো সিটির শহরতলীর একটি গ্রামে, মেয়েটির নাম রাখা হয় মাগদালেনা কারমেন ফ্রিদা কাহলো ই ক্যালদেরোন (ফ্রিদা কাহলো)। পিতা গিলেরমো কাহলো যখন জার্মানির ফোরজেইম শহরে চিত্রশিল্পী-স্বর্ণকার জ্যাকব হেনরিখ কাহলো আর হেনরিয়েট ই কফম্যান এর ঘরে জন্ম নেন তিনি।

তিনি কখনোই স্বপ্ন আঁকতেন না। বরং নিজের বাস্তবতা তুলে ধরতেন রং-তুলিতে। শিল্পী ও ব্যক্তি দুই জায়গাতেই তিনি ছিলেন শক্তিশালী। ফ্রিদা কাহলোর পুরো জীবনই যেন নাটকের কাহিনি। আর এ কারণেই বোধ হয় তিনি অর্জন করেছিলেন ভিন্নতা। সামাজিক বাধা-নিষেধ উপেক্ষা করে উদ্‌যাপন করে গেছেন জীবনকে।

মেক্সিকান চিত্রশিল্পী ফ্রিদা কাহলো মারা যাওয়ার ৬৪ বছর পরও তিনি জনপ্রিয়। শিল্পী ফ্রিদা কাহলোর চুল, পোশাক নিয়ে এখনো ডিজাইনাররা, রূপবিশেষজ্ঞরা কাজ করে চলেছেন। ভক্তরাও সেই ধারা গ্রহণ করছেন। ফ্রিদার স্টাইল, ফ্যাশন এখনো জীবন্ত। তিনি হয়ে উঠেছেন ফ্যাশন আইকন। 

সম্প্রতি ফ্যাশন ডিজাইনার ও কোরিওগ্রাফার এডলফ খান এই জনপ্রিয় চিত্রশিল্পীকে উৎসর্গ করে তাঁরই সাজে ভিন্ন এক রূপে হাজির হলেন, ছবি গুলো প্রকাশের পর থেকেই শোবিজ অঙ্গনে বেশ চর্চা চলছে তার এই ভিন্ন লুক দেখে, সোশ্যাল মিডিয়াতে ছবির কমেন্ট বক্সে অনেক তারকাই তাকে সাধুবাদ জানিয়েছে তার এই সাহসী কাজের জন্য এছাড়াও ভক্তদের বেশ প্রশংসায় ভাসছেন তিনি!

ফ্রিদা কাহলোর এই লুকটির জন্য নির্দেশনা দিয়েছেন শাহরুখ আমিন, মেকাল ও হেয়ার সটাই করেছেন মনির হোসেন, ছবি তুলেছেন এম.এইস বিপু।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

নতুন লুকে প্রশংসিত এডলফ খান

আপলোড সময় : ১১:০৩:৩৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ নভেম্বর ২০২৩

মেক্সিকোর আধুনিক চিত্রকলার সবচেয়ে মেধাবী এবং গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিত্ত বলা হয় ফ্রিদা কাহলোকে। ১৯০৭ সালের ছয় জুলাই একটি মেয়ের জন্ম হয় ম্যাক্সিকো সিটির শহরতলীর একটি গ্রামে, মেয়েটির নাম রাখা হয় মাগদালেনা কারমেন ফ্রিদা কাহলো ই ক্যালদেরোন (ফ্রিদা কাহলো)। পিতা গিলেরমো কাহলো যখন জার্মানির ফোরজেইম শহরে চিত্রশিল্পী-স্বর্ণকার জ্যাকব হেনরিখ কাহলো আর হেনরিয়েট ই কফম্যান এর ঘরে জন্ম নেন তিনি।

তিনি কখনোই স্বপ্ন আঁকতেন না। বরং নিজের বাস্তবতা তুলে ধরতেন রং-তুলিতে। শিল্পী ও ব্যক্তি দুই জায়গাতেই তিনি ছিলেন শক্তিশালী। ফ্রিদা কাহলোর পুরো জীবনই যেন নাটকের কাহিনি। আর এ কারণেই বোধ হয় তিনি অর্জন করেছিলেন ভিন্নতা। সামাজিক বাধা-নিষেধ উপেক্ষা করে উদ্‌যাপন করে গেছেন জীবনকে।

মেক্সিকান চিত্রশিল্পী ফ্রিদা কাহলো মারা যাওয়ার ৬৪ বছর পরও তিনি জনপ্রিয়। শিল্পী ফ্রিদা কাহলোর চুল, পোশাক নিয়ে এখনো ডিজাইনাররা, রূপবিশেষজ্ঞরা কাজ করে চলেছেন। ভক্তরাও সেই ধারা গ্রহণ করছেন। ফ্রিদার স্টাইল, ফ্যাশন এখনো জীবন্ত। তিনি হয়ে উঠেছেন ফ্যাশন আইকন। 

সম্প্রতি ফ্যাশন ডিজাইনার ও কোরিওগ্রাফার এডলফ খান এই জনপ্রিয় চিত্রশিল্পীকে উৎসর্গ করে তাঁরই সাজে ভিন্ন এক রূপে হাজির হলেন, ছবি গুলো প্রকাশের পর থেকেই শোবিজ অঙ্গনে বেশ চর্চা চলছে তার এই ভিন্ন লুক দেখে, সোশ্যাল মিডিয়াতে ছবির কমেন্ট বক্সে অনেক তারকাই তাকে সাধুবাদ জানিয়েছে তার এই সাহসী কাজের জন্য এছাড়াও ভক্তদের বেশ প্রশংসায় ভাসছেন তিনি!

ফ্রিদা কাহলোর এই লুকটির জন্য নির্দেশনা দিয়েছেন শাহরুখ আমিন, মেকাল ও হেয়ার সটাই করেছেন মনির হোসেন, ছবি তুলেছেন এম.এইস বিপু।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন