ঢাকা ১০:৫৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যার কোমরে অস্ত্র থাকে তার প্রভাবই হয় আলাদা – তৈমূর আলম

মো: সাদ্দাম হোসেন মুন্না খান (নিজস্ব প্রতিবেদক)
মো: সাদ্দাম হোসেন মুন্না খান (নিজস্ব প্রতিবেদক)
  • আপলোড সময় : ০৭:২৭:৩৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ৪ ডিসেম্বর ২০২৩
  • / ৩০২ বার পড়া হয়েছে

তৃণমূল বিএনপির মহাসচিব অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার বলেছেন, অস্ত্র নিয়ে শোডাউনের বিষয়টি কঠিনভাবে দেখা উচিত। যার কোমরে অস্ত্র থাকে তার প্রভাবই হয় আলাদা। এ জন্য আমি নির্বাচন কমিশনকে অনুরোধ করছি সব বৈধ-অবৈধ অস্ত্র যেন উদ্ধার করে জমা নেওয়া হয়। এটা হলে জনগণ নিরাপত্তাবোধ করবে এবং ভোটকেন্দ্রে যাওয়ার সাহস পাবে।
সোমবার (৪ ডিসেম্বর) সকালে নারায়ণগঞ্জ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ের সামনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। এ দিন নারায়ণগঞ্জ জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদুল হক তাঁর মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করেন।
তৈমূর বলেন, নির্বাচন পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলার সময় হয়নি। আশঙ্কাজনক কোনো অবস্থা সৃষ্টি হলে আমি অবশ্যই কথা বলবো। আমি আল্লাহ ছাড়া কাউকে ভয় পাই না। আমি জনগণের পক্ষে কথা বলতে ও রূপগঞ্জ থেকে জগদ্দল পাথর সরাতে এসেছি।
তিনি আরও বলেন, নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে আমার নির্বাচন করার সুযোগ ছিল। কিন্তু রূপগঞ্জবাসীর অধিকার আদায় ও সম্পদ রক্ষার জন্য আমি রূপগঞ্জকে বেছে নিয়েছি। আমার মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে। এখন দলমত নির্বিশেষে সবাইকে সঙ্গে নিয়ে নির্বাচন করবো। আমি নির্বাচিত হলে আমার কোনো পিএস, এপিএস থাকবে না। কোনো সন্ত্রাসী বাহিনী থাকবে না। এমনকি আমি কোনো স্থানীয় নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করবো না।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

যার কোমরে অস্ত্র থাকে তার প্রভাবই হয় আলাদা – তৈমূর আলম

আপলোড সময় : ০৭:২৭:৩৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ৪ ডিসেম্বর ২০২৩

তৃণমূল বিএনপির মহাসচিব অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার বলেছেন, অস্ত্র নিয়ে শোডাউনের বিষয়টি কঠিনভাবে দেখা উচিত। যার কোমরে অস্ত্র থাকে তার প্রভাবই হয় আলাদা। এ জন্য আমি নির্বাচন কমিশনকে অনুরোধ করছি সব বৈধ-অবৈধ অস্ত্র যেন উদ্ধার করে জমা নেওয়া হয়। এটা হলে জনগণ নিরাপত্তাবোধ করবে এবং ভোটকেন্দ্রে যাওয়ার সাহস পাবে।
সোমবার (৪ ডিসেম্বর) সকালে নারায়ণগঞ্জ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ের সামনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। এ দিন নারায়ণগঞ্জ জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদুল হক তাঁর মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করেন।
তৈমূর বলেন, নির্বাচন পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলার সময় হয়নি। আশঙ্কাজনক কোনো অবস্থা সৃষ্টি হলে আমি অবশ্যই কথা বলবো। আমি আল্লাহ ছাড়া কাউকে ভয় পাই না। আমি জনগণের পক্ষে কথা বলতে ও রূপগঞ্জ থেকে জগদ্দল পাথর সরাতে এসেছি।
তিনি আরও বলেন, নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে আমার নির্বাচন করার সুযোগ ছিল। কিন্তু রূপগঞ্জবাসীর অধিকার আদায় ও সম্পদ রক্ষার জন্য আমি রূপগঞ্জকে বেছে নিয়েছি। আমার মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে। এখন দলমত নির্বিশেষে সবাইকে সঙ্গে নিয়ে নির্বাচন করবো। আমি নির্বাচিত হলে আমার কোনো পিএস, এপিএস থাকবে না। কোনো সন্ত্রাসী বাহিনী থাকবে না। এমনকি আমি কোনো স্থানীয় নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করবো না।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন