ঢাকা ০৩:৪৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ছেলের বউয়ের কাবিনের টাকার চাপ সইতে না পেরে বৃদ্ধের আত্মহত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপলোড সময় : ১০:১৭:৪১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১২ ডিসেম্বর ২০২৩
  • / ২৯৫ বার পড়া হয়েছে

ছেলের বউয়ের কাবিনের টাকার চাপ সইতে না পেরে জাবের হোসেন ওরফে ধনা মিয়া নামে ৬০ বছর বয়সী এক বৃদ্ধ ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেছে।

সোমবার (১১ ডিসেম্বর) রাত ৯টার দিকে ওই বৃদ্ধের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

এর আগে আসরের নামাজ পড়ে ঘরে গিয়ে রান্না ঘরে রশির সাথে ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করে। ঘটনাটি ঘটেছে রাউজান সদর ইউনিয়নের ২নাম্বার ওয়ার্ডের হাদু চৌধুরী বাড়িতে। তবে ঘটনার সময় স্ত্রী বা পরিবারের কোনো সদস্য বাসায় ছিল না। জাবের হোসেন ওরফে ধনা মিয়া ওই এলাকার আবুল খায়ের এর ছেলে।

লাশ ঝুলতে দেখা ১২ বছর বয়সী শিশু চিশতি রহমান সরোয়ার জানায়, আমি দেওয়াল টপকিয়ে মুরগি ঢুকাতে গিয়ে ঝুলন্ত লাশ দেখা সবাইকে জানাই।

জানা যায়, আত্মহননকারী জাবের এর ছেলে মনির গত চার বছর আগে বিয়ে করেন। পারিবারিক কলহের জের ধরে প্রাবাস থেকে ডিভোর্স লেটার পাঠায় স্বামী। তাদের বিয়ের কাবিন ছিল ১২ লাখ টাকা। তার মধ্যে উসুল ৩লাখ টাকা। বাকী নয় লক্ষ টাকার মধ্যে মেয়ে পক্ষ দাবি করে ৬ লাখ টাকা। আত্মহননকারী ৪ লাখ টাকা দিতে চেয়েছিল৷ ৬ লাখ টাকা দেওয়ার জন্য চাপ দেওয়ায় আত্মহত্যা করেন জাবের৷

স্থানীয় ইউপি সদস্য ফোরকান মিয়া বলেন, সংবাদ পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে এসে পুলিশকে খবর দিই। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করে।

আত্মহত্যার কারণ প্রসঙ্গে নিহতের আত্মীয় বীর মুক্তিযোদ্ধা এম হাসেম চৌধুরী বলেন, কাবিনের টাকার চাপ সইতে না পেরে জাবের আত্নহত্যা করেছে। এদিকে রাউজান থানার ওসি তদন্ত পুলিশ পরিদর্শক সিদ্দিকুর রহমান বলেন, খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হবে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

ছেলের বউয়ের কাবিনের টাকার চাপ সইতে না পেরে বৃদ্ধের আত্মহত্যা

আপলোড সময় : ১০:১৭:৪১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১২ ডিসেম্বর ২০২৩

ছেলের বউয়ের কাবিনের টাকার চাপ সইতে না পেরে জাবের হোসেন ওরফে ধনা মিয়া নামে ৬০ বছর বয়সী এক বৃদ্ধ ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেছে।

সোমবার (১১ ডিসেম্বর) রাত ৯টার দিকে ওই বৃদ্ধের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

এর আগে আসরের নামাজ পড়ে ঘরে গিয়ে রান্না ঘরে রশির সাথে ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করে। ঘটনাটি ঘটেছে রাউজান সদর ইউনিয়নের ২নাম্বার ওয়ার্ডের হাদু চৌধুরী বাড়িতে। তবে ঘটনার সময় স্ত্রী বা পরিবারের কোনো সদস্য বাসায় ছিল না। জাবের হোসেন ওরফে ধনা মিয়া ওই এলাকার আবুল খায়ের এর ছেলে।

লাশ ঝুলতে দেখা ১২ বছর বয়সী শিশু চিশতি রহমান সরোয়ার জানায়, আমি দেওয়াল টপকিয়ে মুরগি ঢুকাতে গিয়ে ঝুলন্ত লাশ দেখা সবাইকে জানাই।

জানা যায়, আত্মহননকারী জাবের এর ছেলে মনির গত চার বছর আগে বিয়ে করেন। পারিবারিক কলহের জের ধরে প্রাবাস থেকে ডিভোর্স লেটার পাঠায় স্বামী। তাদের বিয়ের কাবিন ছিল ১২ লাখ টাকা। তার মধ্যে উসুল ৩লাখ টাকা। বাকী নয় লক্ষ টাকার মধ্যে মেয়ে পক্ষ দাবি করে ৬ লাখ টাকা। আত্মহননকারী ৪ লাখ টাকা দিতে চেয়েছিল৷ ৬ লাখ টাকা দেওয়ার জন্য চাপ দেওয়ায় আত্মহত্যা করেন জাবের৷

স্থানীয় ইউপি সদস্য ফোরকান মিয়া বলেন, সংবাদ পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে এসে পুলিশকে খবর দিই। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাশ উদ্ধার করে।

আত্মহত্যার কারণ প্রসঙ্গে নিহতের আত্মীয় বীর মুক্তিযোদ্ধা এম হাসেম চৌধুরী বলেন, কাবিনের টাকার চাপ সইতে না পেরে জাবের আত্নহত্যা করেছে। এদিকে রাউজান থানার ওসি তদন্ত পুলিশ পরিদর্শক সিদ্দিকুর রহমান বলেন, খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হবে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন