ঢাকা ০৫:২২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কেরানীগঞ্জে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে একই পরিবারের দগ্ধ ৪, আহত ০৬

মো: শাহিন (নিজস্ব প্রতিবেদক)
মো: শাহিন (নিজস্ব প্রতিবেদক)
  • আপলোড সময় : ০৪:২৭:২৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০২৩
  • / ৪৬১ বার পড়া হয়েছে

ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের একটি বাসায় গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণের একই পরিবারের চার জন দগ্ধ হয়েছে। এছাড়াও এ ঘটনায় দেয়াল আরও ছয়জন আহত হয়েছে।

আজ সোমবার সকাল সাড়ে ৯টায় দিকে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার কোন্ডা ইউনিয়নের কাউটাইল ঋষিপাড়া এলাকায় একটি চারতলা বাড়ির নিচ তলায় এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

দগ্ধরা হলেন-উমা চক্রবর্তী (৭৫), বীনা রানী (৫০), দেবা চক্রবর্তী (৩৫), পিনাট চক্রবর্তী (১৪)। দেয়াল ধসে আহতরা হলেন, তারা রানী, তাপস চক্রবর্তী, রাখি রানী, লিপি রানী , স্বপনরাজ চক্রবর্তী ও নিঝুম।

স্থানীয়রা জানান, সকালে উমা চক্রবর্তী রান্না করার জন্য রান্না ঘরে যান। সেখানে গিয়ে দেশলাই জ্বালাতেই বিকট বিস্ফোরণ ঘটে। এতে দাউ দাউ করে আগুন জ্বলে ওঠে। এই গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে একই পরিবারের চারজন দগ্ধ হয়। পরে দগ্ধদের উদ্ধার করে শেখ হাসিনা বার্ন ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়। বিকট বিস্ফোরণ বাড়ির দেওয়ালের কিছু অংশ ভেঙে পড়ে ছয়জন আহত হয। তাদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয।

এ বিষয়ে বার্ন ইনস্টিটিউটের আবাসিক চিকিৎসক ডা. মো. তরিকুল ইসলাম বলেন, ‘কেরানীগঞ্জ থেকে চারজন দগ্ধ ইনস্টিটিউটে এসেছেন। দুজন পুরুষ, দুজন নারী। এদের মধ্যে উমা রানীর শরীরের ৯৫ শতাংশ, বিনা চক্রবর্তীর ৮৫, দেবা চক্রবর্তীর ১৬ ও পিনাক চক্রবর্তীর ২৪ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে। পাশাপাশি তাদের ৪ জনেরই শ্বাসনালি পুড়ে গেছে। তাদের সবার অবস্থায়ই আশঙ্কাজনক।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (পরিদর্শক) মো. বাচ্চু মিয়া জানান, কেরানীগঞ্জ থেকে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে দুজন ঢাকা মেডিকেলে এসেছে। দুজনেরই মাথায় আঘাত আছে। তাদের অবস্থা গুরুতর।

এ বিষয়ে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাহাবুব আলম বলেন, দগ্ধদের উদ্ধার করে শেখ হাসিনা বার্ন ইনস্টিটিউটে পাঠানো হয়েছে। তাদের মধ্যে দু’জনে অবস্থা আশঙ্কাজনক।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

কেরানীগঞ্জে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে একই পরিবারের দগ্ধ ৪, আহত ০৬

আপলোড সময় : ০৪:২৭:২৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০২৩

ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের একটি বাসায় গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণের একই পরিবারের চার জন দগ্ধ হয়েছে। এছাড়াও এ ঘটনায় দেয়াল আরও ছয়জন আহত হয়েছে।

আজ সোমবার সকাল সাড়ে ৯টায় দিকে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার কোন্ডা ইউনিয়নের কাউটাইল ঋষিপাড়া এলাকায় একটি চারতলা বাড়ির নিচ তলায় এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।

দগ্ধরা হলেন-উমা চক্রবর্তী (৭৫), বীনা রানী (৫০), দেবা চক্রবর্তী (৩৫), পিনাট চক্রবর্তী (১৪)। দেয়াল ধসে আহতরা হলেন, তারা রানী, তাপস চক্রবর্তী, রাখি রানী, লিপি রানী , স্বপনরাজ চক্রবর্তী ও নিঝুম।

স্থানীয়রা জানান, সকালে উমা চক্রবর্তী রান্না করার জন্য রান্না ঘরে যান। সেখানে গিয়ে দেশলাই জ্বালাতেই বিকট বিস্ফোরণ ঘটে। এতে দাউ দাউ করে আগুন জ্বলে ওঠে। এই গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে একই পরিবারের চারজন দগ্ধ হয়। পরে দগ্ধদের উদ্ধার করে শেখ হাসিনা বার্ন ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়। বিকট বিস্ফোরণ বাড়ির দেওয়ালের কিছু অংশ ভেঙে পড়ে ছয়জন আহত হয। তাদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয।

এ বিষয়ে বার্ন ইনস্টিটিউটের আবাসিক চিকিৎসক ডা. মো. তরিকুল ইসলাম বলেন, ‘কেরানীগঞ্জ থেকে চারজন দগ্ধ ইনস্টিটিউটে এসেছেন। দুজন পুরুষ, দুজন নারী। এদের মধ্যে উমা রানীর শরীরের ৯৫ শতাংশ, বিনা চক্রবর্তীর ৮৫, দেবা চক্রবর্তীর ১৬ ও পিনাক চক্রবর্তীর ২৪ শতাংশ দগ্ধ হয়েছে। পাশাপাশি তাদের ৪ জনেরই শ্বাসনালি পুড়ে গেছে। তাদের সবার অবস্থায়ই আশঙ্কাজনক।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (পরিদর্শক) মো. বাচ্চু মিয়া জানান, কেরানীগঞ্জ থেকে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে দুজন ঢাকা মেডিকেলে এসেছে। দুজনেরই মাথায় আঘাত আছে। তাদের অবস্থা গুরুতর।

এ বিষয়ে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাহাবুব আলম বলেন, দগ্ধদের উদ্ধার করে শেখ হাসিনা বার্ন ইনস্টিটিউটে পাঠানো হয়েছে। তাদের মধ্যে দু’জনে অবস্থা আশঙ্কাজনক।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন