ঢাকা ০৫:৫২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সিদ্ধিরগঞ্জে ভুল চিকিৎসায় রোগী মৃত্যুর অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপলোড সময় : ০৮:১০:৫৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৪ ডিসেম্বর ২০২৩
  • / ৫০০ বার পড়া হয়েছে

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের সাইনবোর্ড এলাকার প্রো-অ্যাকটিভ হাসপাতালে বুকের ব্যথার চিকিৎসা করাতে এসেছিলেন ফারজানা আক্তার (৪০) নামে এক গৃহবধূ। অভিযোগ উঠেছে, চিকিৎসকের ভুল চিকিৎসায় তার মৃত্যু হয়েছে।

গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে হাসপাতালের আইসিইউতে ওই নারীর মৃত্যু হয়।
স্থানীয় রুহুল আমিনের স্ত্রী ফারজানা আক্তার দুই মেয়ের মা। তার স্বজন জানায়, ভোর সাড়ে ৫টায় বুকে ব্যথা অনুভব হলে তারা ফারজানাকে প্রো-অ্যাকটিভ হাসপাতালে নেন। হার্ট ফেল করেছে জানিয়ে চিকিৎসকরা তাৎক্ষণিক তাকে দুটি ইনজেকশন দেন। পরে অবস্থার অবনতি হলে আইসিইউতে নিয়ে আরও ১০টি ইনজেকশন দেন। সাড়ে ৮টার দিকে রোগীর মৃত্যু হয়। তখন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাড়াহুড়া করে রোগীর স্বজনকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন। রোগী কোনো শ্বাস-প্রশ্বাস নিচ্ছেন না দেখে স্বজনরা বুঝতে পারেন তার মৃত্যু হয়েছে। নিহতের ভাশুরের ছেলে আনু খান বলেন, রোগীকে কী ইনজেকশন দেওয়া হয়েছে জিজ্ঞাসা করা হলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কোনো উত্তর দেয়নি। ডাক্তারের ভুল ইনজেকশন দেওয়ার কারণেই রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এ মৃত্যুকে হত্যা দাবি করেন তিনি।

জানতে চাইলে হাসপাতালটির ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) মো. রাশিদুল ইসলাম বলেন, ভুল চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ সঠিক নয়। কার্ডিয়াক সমস্যা নিয়ে রোগী ভোরে হাসপাতালে ভর্তি হন। তাকে বাঁচাতে চিকিৎসকরা চেষ্টার কোনো ত্রুটি রাখেননি। কিন্তু চিকিৎসাধীন অবস্থায় রোগী মারা যান।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি মোহাম্মদ আবু বকর সিদ্দিক বলেন, একজন রোগীর মৃত্যুর খবর শুনেছি। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য স্বজনকে বলেছিলাম। কিন্তু তারা ময়নাতদন্ত করবেন না বলে লাশ নিয়ে গেছেন। তবে স্বজনের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ করা হলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নারায়ণগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. এ এফ এম মুশিউর রহমান বলেন, ভুল চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যু হলে থানায় অভিযোগ দিতে হবে। আমাদের কাছে লিখিত চিঠি পাঠালে আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।

 

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

সিদ্ধিরগঞ্জে ভুল চিকিৎসায় রোগী মৃত্যুর অভিযোগ

আপলোড সময় : ০৮:১০:৫৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৪ ডিসেম্বর ২০২৩

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের সাইনবোর্ড এলাকার প্রো-অ্যাকটিভ হাসপাতালে বুকের ব্যথার চিকিৎসা করাতে এসেছিলেন ফারজানা আক্তার (৪০) নামে এক গৃহবধূ। অভিযোগ উঠেছে, চিকিৎসকের ভুল চিকিৎসায় তার মৃত্যু হয়েছে।

গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে হাসপাতালের আইসিইউতে ওই নারীর মৃত্যু হয়।
স্থানীয় রুহুল আমিনের স্ত্রী ফারজানা আক্তার দুই মেয়ের মা। তার স্বজন জানায়, ভোর সাড়ে ৫টায় বুকে ব্যথা অনুভব হলে তারা ফারজানাকে প্রো-অ্যাকটিভ হাসপাতালে নেন। হার্ট ফেল করেছে জানিয়ে চিকিৎসকরা তাৎক্ষণিক তাকে দুটি ইনজেকশন দেন। পরে অবস্থার অবনতি হলে আইসিইউতে নিয়ে আরও ১০টি ইনজেকশন দেন। সাড়ে ৮টার দিকে রোগীর মৃত্যু হয়। তখন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাড়াহুড়া করে রোগীর স্বজনকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন। রোগী কোনো শ্বাস-প্রশ্বাস নিচ্ছেন না দেখে স্বজনরা বুঝতে পারেন তার মৃত্যু হয়েছে। নিহতের ভাশুরের ছেলে আনু খান বলেন, রোগীকে কী ইনজেকশন দেওয়া হয়েছে জিজ্ঞাসা করা হলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কোনো উত্তর দেয়নি। ডাক্তারের ভুল ইনজেকশন দেওয়ার কারণেই রোগীর মৃত্যু হয়েছে। এ মৃত্যুকে হত্যা দাবি করেন তিনি।

জানতে চাইলে হাসপাতালটির ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) মো. রাশিদুল ইসলাম বলেন, ভুল চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ সঠিক নয়। কার্ডিয়াক সমস্যা নিয়ে রোগী ভোরে হাসপাতালে ভর্তি হন। তাকে বাঁচাতে চিকিৎসকরা চেষ্টার কোনো ত্রুটি রাখেননি। কিন্তু চিকিৎসাধীন অবস্থায় রোগী মারা যান।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি মোহাম্মদ আবু বকর সিদ্দিক বলেন, একজন রোগীর মৃত্যুর খবর শুনেছি। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য স্বজনকে বলেছিলাম। কিন্তু তারা ময়নাতদন্ত করবেন না বলে লাশ নিয়ে গেছেন। তবে স্বজনের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ করা হলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নারায়ণগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. এ এফ এম মুশিউর রহমান বলেন, ভুল চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যু হলে থানায় অভিযোগ দিতে হবে। আমাদের কাছে লিখিত চিঠি পাঠালে আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।

 

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন