ঢাকা ০৮:৫২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিএনপির নির্বাচন প্রতিহতের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার প্রস্তুতি রয়েছে : সিইসি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপলোড সময় : ০৮:৫৮:৩৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩০ ডিসেম্বর ২০২৩
  • / ২৮২ বার পড়া হয়েছে

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেছেন, নির্বাচনি পরিবেশ নিয়ে প্রার্থীদের অভিযোগ একেবারেই নগণ্য। নির্বাচনে সেনাবাহিনীর উপস্থিতি ভোটারদের আস্থাশীল করবে। নির্বাচনে অংশ না নিয়ে বিএনপি এখন পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি করছে, এটা তাদের গণতান্ত্রিক অধিকার। তবে তারা নির্বাচন প্রতিহত করতে চাইলে, সেই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে আমাদের প্রস্তুতি রয়েছে।
সিলেটে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রার্থীদের সাথে মতবিনিময় শেষে আজ শনিবার (৩০ ডিসেম্বর) প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়াল এসব কথা বলেন।

সিলেট সার্কিট হাউজে সকাল ১০টা থেকে দুপুর দুইটা পর্যন্ত সিলেটের ৬টি আসনের প্রার্থীদের সাথে বৈঠক করেন সিইসি। এছাড়া জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সাথে মতবিনিময় করেন তিনি। পরে গণমাধ্যমকে এসব কথা বলেন।
সিইসি বলেন, নির্বাচনের দিন ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথ কমানো হবে না। তবে কেউ ফেব্রিকেট তথ্য ছড়ালে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
বৈঠকে সিলেটের বিভিন্ন আসনে দলীয় ও গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের ব্যবহার করে প্রভাব বিস্তার, পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা ও টাকা ছড়ানোর অভিযোগ করেন বেশ কয়েকজন প্রার্থী। নির্বাচনি পরিবেশ ঠিক না হলে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর কথাও বলেন কয়েকজন প্রার্থী।
জেলার ৬টি আসনের প্রার্থীদের প্রায় সবাই মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন। তবে সিলেট-১ আসনের আওয়ামী লীগের প্রার্থী পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন ও সিলেট-৪ আসনের প্রার্থী প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ সভায় উপস্থিত হননি। তাদের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন তাদের প্রতিনিধিরা।

এছাড়াও নির্বাচন কমিশনের সচিব জাহাংগীর আলম, সিলেট বিভাগীয় কমিশনার আবু আহম ছিদ্দীকী ও জেলা প্রশাসক শেখ রাসেল হাসান উপস্থিত ছিলেন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

বিএনপির নির্বাচন প্রতিহতের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার প্রস্তুতি রয়েছে : সিইসি

আপলোড সময় : ০৮:৫৮:৩৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩০ ডিসেম্বর ২০২৩

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেছেন, নির্বাচনি পরিবেশ নিয়ে প্রার্থীদের অভিযোগ একেবারেই নগণ্য। নির্বাচনে সেনাবাহিনীর উপস্থিতি ভোটারদের আস্থাশীল করবে। নির্বাচনে অংশ না নিয়ে বিএনপি এখন পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি করছে, এটা তাদের গণতান্ত্রিক অধিকার। তবে তারা নির্বাচন প্রতিহত করতে চাইলে, সেই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে আমাদের প্রস্তুতি রয়েছে।
সিলেটে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রার্থীদের সাথে মতবিনিময় শেষে আজ শনিবার (৩০ ডিসেম্বর) প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়াল এসব কথা বলেন।

সিলেট সার্কিট হাউজে সকাল ১০টা থেকে দুপুর দুইটা পর্যন্ত সিলেটের ৬টি আসনের প্রার্থীদের সাথে বৈঠক করেন সিইসি। এছাড়া জেলা শিল্পকলা একাডেমি মিলনায়তনে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সাথে মতবিনিময় করেন তিনি। পরে গণমাধ্যমকে এসব কথা বলেন।
সিইসি বলেন, নির্বাচনের দিন ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথ কমানো হবে না। তবে কেউ ফেব্রিকেট তথ্য ছড়ালে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
বৈঠকে সিলেটের বিভিন্ন আসনে দলীয় ও গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের ব্যবহার করে প্রভাব বিস্তার, পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা ও টাকা ছড়ানোর অভিযোগ করেন বেশ কয়েকজন প্রার্থী। নির্বাচনি পরিবেশ ঠিক না হলে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর কথাও বলেন কয়েকজন প্রার্থী।
জেলার ৬টি আসনের প্রার্থীদের প্রায় সবাই মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন। তবে সিলেট-১ আসনের আওয়ামী লীগের প্রার্থী পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন ও সিলেট-৪ আসনের প্রার্থী প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ সভায় উপস্থিত হননি। তাদের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন তাদের প্রতিনিধিরা।

এছাড়াও নির্বাচন কমিশনের সচিব জাহাংগীর আলম, সিলেট বিভাগীয় কমিশনার আবু আহম ছিদ্দীকী ও জেলা প্রশাসক শেখ রাসেল হাসান উপস্থিত ছিলেন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন