ঢাকা ১১:৪১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সোনারগাঁ পৌরসভার সড়কের পাশে লাকড়ির দোকান, মানুষের স্বাভাবিক চলাচল ব্যাহত

সোনারগাঁ প্রতিনিধি
সোনারগাঁ প্রতিনিধি
  • আপলোড সময় : ০৬:০০:৫১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • / ২৯২ বার পড়া হয়েছে

নারায়ণগঞ্জ সোনারগাঁ পৌরসভার আনন্দবাজার যাওয়ার প্রধান সড়কের দুপাশ বছরের পর বছর অস্থায়ী দোকানপাটের দখলে রয়েছে। এতে মানুষের স্বাভাবিক চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। বিশেষ করে শিশু, বয়স্ক ও শিক্ষার্থীদের চলাচলে মারাত্মক সমস্যা হচ্ছে। অস্থায়ী দোকানপাট বসিয়ে রাস্তা বন্ধ রাখলেও প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের যেন কিছুই করার নেই।

আনন্দ বাজার প্রবেশ মুখে প্রধান সড়কটিতে ১৫ থেকে ২০টি অস্থায়ী দোকানপাট বসানো হয়েছে। এ কারণে সড়কটিতে প্রতিনিয়ত তীব্র যানজটসহ নানা প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি হয়। অভিযোগ-অস্থায়ী দোকানপাট বসিয়ে স্থানীয় প্রভাবশালীরা চাঁদা আদায় করছে। কেউ আবার এক যুগ পার করেছেন এমন অবৈধ দোকান বসিয়ে।

সরেজমিন দেখা যায়, সোনারগাঁও উপজেলা পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের অভ্যন্তরীণ কূশিয়ারা মার্কেট সংলগ্ন আনন্দবাজার প্রবেশ মুখে সড়কটি অপ্রশস্ত ও অপরিকল্পিত। এই সড়কটি খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি পয়েন্ট। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, সোনারগাঁ থানা, উপজেলা, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক সহ বিভিন্ন শ্রেণীর মানুষ এই পথগুলো ব্যবহার করে থাকে, কিন্তু এই মোড়ে অসাধু ব্যবসায়ী লাকড়ির দোকানিরা ও চায়ের দোকানপাট বসিয়ে পথচারীদের হাটার রাস্তা দখল করে রমরমা বাণিজ্য করে যাচ্ছে। লক্ষ্য করা গেছে, এই সমস্ত দোকান পাটের মালিকগণ জনগণের হাঁটার রাস্তা দখল করার কারণে পথচারীরা গাড়ি চলাচলের রাস্তা ব্যবহার করছে। আর অবৈধ দোকানপাটের মালিকরা পথচারীদের রাস্তা দখল করছে, ফলে যেকোনো সময় পথচারীদের মারাত্মক দুর্ঘটনার কবলে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে।

এ ব্যাপারে দোকানপাটের মালিকদের সাথে কথা বললে তারা বলেন ,আমরা গরীব মানুষ এখানে ছোটখাটো ব্যবসা করে সংসার চালাই, আমাদের পেটে লাথি দিয়েন না।

এ বিষয়ে সোনারগাঁও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, আমি এখানে নতুন যোগদান করেছি, এ বিষয়ে আমি অবগত না, তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সড়ক দখল করে কিছুতেই স্বাভাবিক চলাচল ব্যাহত করা যাবে না।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

সোনারগাঁ পৌরসভার সড়কের পাশে লাকড়ির দোকান, মানুষের স্বাভাবিক চলাচল ব্যাহত

আপলোড সময় : ০৬:০০:৫১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

নারায়ণগঞ্জ সোনারগাঁ পৌরসভার আনন্দবাজার যাওয়ার প্রধান সড়কের দুপাশ বছরের পর বছর অস্থায়ী দোকানপাটের দখলে রয়েছে। এতে মানুষের স্বাভাবিক চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। বিশেষ করে শিশু, বয়স্ক ও শিক্ষার্থীদের চলাচলে মারাত্মক সমস্যা হচ্ছে। অস্থায়ী দোকানপাট বসিয়ে রাস্তা বন্ধ রাখলেও প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের যেন কিছুই করার নেই।

আনন্দ বাজার প্রবেশ মুখে প্রধান সড়কটিতে ১৫ থেকে ২০টি অস্থায়ী দোকানপাট বসানো হয়েছে। এ কারণে সড়কটিতে প্রতিনিয়ত তীব্র যানজটসহ নানা প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি হয়। অভিযোগ-অস্থায়ী দোকানপাট বসিয়ে স্থানীয় প্রভাবশালীরা চাঁদা আদায় করছে। কেউ আবার এক যুগ পার করেছেন এমন অবৈধ দোকান বসিয়ে।

সরেজমিন দেখা যায়, সোনারগাঁও উপজেলা পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের অভ্যন্তরীণ কূশিয়ারা মার্কেট সংলগ্ন আনন্দবাজার প্রবেশ মুখে সড়কটি অপ্রশস্ত ও অপরিকল্পিত। এই সড়কটি খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি পয়েন্ট। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, সোনারগাঁ থানা, উপজেলা, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক সহ বিভিন্ন শ্রেণীর মানুষ এই পথগুলো ব্যবহার করে থাকে, কিন্তু এই মোড়ে অসাধু ব্যবসায়ী লাকড়ির দোকানিরা ও চায়ের দোকানপাট বসিয়ে পথচারীদের হাটার রাস্তা দখল করে রমরমা বাণিজ্য করে যাচ্ছে। লক্ষ্য করা গেছে, এই সমস্ত দোকান পাটের মালিকগণ জনগণের হাঁটার রাস্তা দখল করার কারণে পথচারীরা গাড়ি চলাচলের রাস্তা ব্যবহার করছে। আর অবৈধ দোকানপাটের মালিকরা পথচারীদের রাস্তা দখল করছে, ফলে যেকোনো সময় পথচারীদের মারাত্মক দুর্ঘটনার কবলে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে।

এ ব্যাপারে দোকানপাটের মালিকদের সাথে কথা বললে তারা বলেন ,আমরা গরীব মানুষ এখানে ছোটখাটো ব্যবসা করে সংসার চালাই, আমাদের পেটে লাথি দিয়েন না।

এ বিষয়ে সোনারগাঁও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, আমি এখানে নতুন যোগদান করেছি, এ বিষয়ে আমি অবগত না, তদন্ত করে প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সড়ক দখল করে কিছুতেই স্বাভাবিক চলাচল ব্যাহত করা যাবে না।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন