ঢাকা ০৯:৩৬ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সোনারগাঁকে স্মার্ট গড়ার অঙ্গীকার বাস্তবায়নে হসপিটালে অভিযান, জরিমানা সহ সিলগালা

মোঃ ফাহাদুল ইসলাম শরীফ (সোনারগাঁ প্রতিনিধি)
মোঃ ফাহাদুল ইসলাম শরীফ (সোনারগাঁ প্রতিনিধি)
  • আপলোড সময় : ১১:০৫:১৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
  • / ২৫৪ বার পড়া হয়েছে

সোনারগাঁওয়ের কাঁচপুরে বিভিন্ন প্রাইভেট হাসপাতাল ও ক্লিনিকে অভিযান চালিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে এ অভিযান চালানো হয়। সোনারগাঁও’কে ‘স্মার্ট সোনারগাঁও’ গড়ার অংশ হিসাবে সোনারগাঁওয়ের সকল শ্রেণীপেশার মানুষকে প্রকৃত স্বাস্থ্য সেবা প্রদানের নিমিত্তে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ১০ নির্দেশনা বাস্তবায়ন করতে এ অভিযান বলে স্বাস্থ্য সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র জানায়।

সূত্রটি জানায়, গত ২০ ফেব্রুয়ারী সোনারগাঁও রয়েল রিসোর্টে স্মার্ট সোনারগাঁও গড়ার প্রত্যাশায় সকল শ্রেণীপেশার মানুষদের মতামতের জন্যে অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের সাংসদ আব্দুল্লাহ আল কায়সার হাসনাত। সেই মতবিনিময় সভায় স্মার্ট সোনারগাঁও গড়তে বেশ কিছু প্রস্তাবনা তুলে ধরা হয়, যার মধ্যে সোনারগাঁওয়ের স্বাস্থ্য সেবার বিষয়টি গুরুত্বসহকারে তুলে ধরা হয়। যেখানে ক্লিনিক ও হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা করতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ১০টি শর্ত মানার কথা থাকলেও সোনারগাঁওয়ে হাতে গোনা দুই/তিনটি ক্লিনিক ও হাসপাতাল ছাড়া বাকি কোন হাসপাতাল বা ক্লিনিক সে সকল শর্ত মানে না বলে জানানো হয়।

তারই অংশ হিসেবে দুপুরে কাঁচপুর এলাকায় বিভিন্ন হাসপাতালে ভ্রাম্যমান আদালতে অভিযান পরিচালনা করেন সোনারগাঁও উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মো. ইব্রাহিম। অভিযান পরিচালনাকালে ‘কাঁচপুর জেনারেল হাসপাতালকে এক লাখ টাকা, কাঁচপুর মর্ডান হাসপাতালকে দেড় লাখ টাকা জড়িমানা করেন। পাশাপাশি অপারেশন থিয়েটার কক্ষে পর্যাপ্ত মেশিন না থাকা এবং অপরিচ্ছন্ন থাকায় শুভেচ্ছা জেনারেল হাসপাতালের অপারেশ থিয়েটারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সিলগালা করে দেয়া হয়।

সোনারগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সাবরিনা হক বলেন, হাসপাতাল প্রতিষ্ঠায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ১০টি নির্দেশনা বাস্তবায়নের মাধ্যমে অত্র অঞ্চলের সকল শ্রেণিপেশার মানুষকে স্বাস্থ্য সেবা প্রদানের লক্ষ্যেই এ অভিযান। তবে, অভিযানে আমি সরাসরি না থাকলেও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক অফিসার ডা. মোশারফ হোসেন নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে ছিলেন।

সোনারগাঁও উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মো. ইব্রাহিম জানান, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশনায় সারা দেশে অবৈধ প্রাইভেট হাসপাতাল ও ক্লিনিকগুলোর তালিকা করা হচ্ছে। তারই অংশ হিসাবে এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

সোনারগাঁকে স্মার্ট গড়ার অঙ্গীকার বাস্তবায়নে হসপিটালে অভিযান, জরিমানা সহ সিলগালা

আপলোড সময় : ১১:০৫:১৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

সোনারগাঁওয়ের কাঁচপুরে বিভিন্ন প্রাইভেট হাসপাতাল ও ক্লিনিকে অভিযান চালিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে এ অভিযান চালানো হয়। সোনারগাঁও’কে ‘স্মার্ট সোনারগাঁও’ গড়ার অংশ হিসাবে সোনারগাঁওয়ের সকল শ্রেণীপেশার মানুষকে প্রকৃত স্বাস্থ্য সেবা প্রদানের নিমিত্তে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ১০ নির্দেশনা বাস্তবায়ন করতে এ অভিযান বলে স্বাস্থ্য সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র জানায়।

সূত্রটি জানায়, গত ২০ ফেব্রুয়ারী সোনারগাঁও রয়েল রিসোর্টে স্মার্ট সোনারগাঁও গড়ার প্রত্যাশায় সকল শ্রেণীপেশার মানুষদের মতামতের জন্যে অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের সাংসদ আব্দুল্লাহ আল কায়সার হাসনাত। সেই মতবিনিময় সভায় স্মার্ট সোনারগাঁও গড়তে বেশ কিছু প্রস্তাবনা তুলে ধরা হয়, যার মধ্যে সোনারগাঁওয়ের স্বাস্থ্য সেবার বিষয়টি গুরুত্বসহকারে তুলে ধরা হয়। যেখানে ক্লিনিক ও হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা করতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ১০টি শর্ত মানার কথা থাকলেও সোনারগাঁওয়ে হাতে গোনা দুই/তিনটি ক্লিনিক ও হাসপাতাল ছাড়া বাকি কোন হাসপাতাল বা ক্লিনিক সে সকল শর্ত মানে না বলে জানানো হয়।

তারই অংশ হিসেবে দুপুরে কাঁচপুর এলাকায় বিভিন্ন হাসপাতালে ভ্রাম্যমান আদালতে অভিযান পরিচালনা করেন সোনারগাঁও উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মো. ইব্রাহিম। অভিযান পরিচালনাকালে ‘কাঁচপুর জেনারেল হাসপাতালকে এক লাখ টাকা, কাঁচপুর মর্ডান হাসপাতালকে দেড় লাখ টাকা জড়িমানা করেন। পাশাপাশি অপারেশন থিয়েটার কক্ষে পর্যাপ্ত মেশিন না থাকা এবং অপরিচ্ছন্ন থাকায় শুভেচ্ছা জেনারেল হাসপাতালের অপারেশ থিয়েটারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সিলগালা করে দেয়া হয়।

সোনারগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সাবরিনা হক বলেন, হাসপাতাল প্রতিষ্ঠায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ১০টি নির্দেশনা বাস্তবায়নের মাধ্যমে অত্র অঞ্চলের সকল শ্রেণিপেশার মানুষকে স্বাস্থ্য সেবা প্রদানের লক্ষ্যেই এ অভিযান। তবে, অভিযানে আমি সরাসরি না থাকলেও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক অফিসার ডা. মোশারফ হোসেন নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে ছিলেন।

সোনারগাঁও উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মো. ইব্রাহিম জানান, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশনায় সারা দেশে অবৈধ প্রাইভেট হাসপাতাল ও ক্লিনিকগুলোর তালিকা করা হচ্ছে। তারই অংশ হিসাবে এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন