ঢাকা ০৪:৫৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রূপগঞ্জে ৬ দিনেও নিখোঁজ ব্যবসায়ীর সন্ধান মেলেনি

মুহাম্মদ আলী (নিজস্ব প্রতিবেদক)
মুহাম্মদ আলী (নিজস্ব প্রতিবেদক)
  • আপলোড সময় : ০৪:০৪:৪৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৪ মার্চ ২০২৪
  • / ২২২ বার পড়া হয়েছে

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার গোলাকান্দাইল এলাকার বাসিন্দা, ফার্মেসির ঔষধ ব্যবসায়ি নাঈম মিয়া(৩৩), গত ১৮ই মার্চ বিকেল ৪ টা ৩০ মিনিটে ব্যবসায়িক কাজে রূপগঞ্জের গোলাকান্দাইল ইউনিয়নের, নিজ বাড়িতে থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হলে পরবর্তী সময় তাকে আর খুঁজে পাওয়া যায়নি। নাঈম মিয়া (৩৩), গোলাকান্দাইল এলাকার কবির হোসেনের ছেলে। গত ১৯ মার্চ ডেমরা থানায়, নিখোঁজ নাঈম মিয়ার পিতা কবির হোসেন জিডি করেন, জিডি নাং- ১৭৩।
নিখোঁজ নাঈমের পিতা কবির হোসেন বলেন, ১৮ই মার্চ বিকেল ৪ টা ৩০ মিনিটে ব্যবসায়িক কাজে আমার ছেলে মোটরসাইকেল সহ ঢাকার উদ্দেশ্য রওনা হয় , যাহার নাম্বার,
(ঢাকা মেট্রো- ল ৪৩ ৪১ ৫৯) ইতিপূর্বে ও আমার ছেলেকে অজ্ঞান করে, গাউছিয়া ডাচ -বাংলা বুথের সামনে থেকে ব্যবসায়ের চার লক্ষ টাকা দুর্বৃত্তরা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। অসুস্থ অবস্থায় পরিচিত লোকজন তাকে বাড়িতে পৌঁছে দেয়। পুনরায় কিছু দিন না যেতেই এখন তার কোন সন্ধান পাচ্ছিনা। আমরা জানতে পেরেছি তার সর্বশেষ লোকেশন ছিল ডেমরা থানার কোনাবাড়ি এলাকায়।
প্রশাসনের কাছে সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে , আমার ছেলেকে যাতে দ্রুত সময়ের ভিতরে উদ্ধার করে আমাদের কাছে ফিরিয়ে দেবার দাবি জানাচ্ছি।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

রূপগঞ্জে ৬ দিনেও নিখোঁজ ব্যবসায়ীর সন্ধান মেলেনি

আপলোড সময় : ০৪:০৪:৪৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৪ মার্চ ২০২৪

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার গোলাকান্দাইল এলাকার বাসিন্দা, ফার্মেসির ঔষধ ব্যবসায়ি নাঈম মিয়া(৩৩), গত ১৮ই মার্চ বিকেল ৪ টা ৩০ মিনিটে ব্যবসায়িক কাজে রূপগঞ্জের গোলাকান্দাইল ইউনিয়নের, নিজ বাড়িতে থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হলে পরবর্তী সময় তাকে আর খুঁজে পাওয়া যায়নি। নাঈম মিয়া (৩৩), গোলাকান্দাইল এলাকার কবির হোসেনের ছেলে। গত ১৯ মার্চ ডেমরা থানায়, নিখোঁজ নাঈম মিয়ার পিতা কবির হোসেন জিডি করেন, জিডি নাং- ১৭৩।
নিখোঁজ নাঈমের পিতা কবির হোসেন বলেন, ১৮ই মার্চ বিকেল ৪ টা ৩০ মিনিটে ব্যবসায়িক কাজে আমার ছেলে মোটরসাইকেল সহ ঢাকার উদ্দেশ্য রওনা হয় , যাহার নাম্বার,
(ঢাকা মেট্রো- ল ৪৩ ৪১ ৫৯) ইতিপূর্বে ও আমার ছেলেকে অজ্ঞান করে, গাউছিয়া ডাচ -বাংলা বুথের সামনে থেকে ব্যবসায়ের চার লক্ষ টাকা দুর্বৃত্তরা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। অসুস্থ অবস্থায় পরিচিত লোকজন তাকে বাড়িতে পৌঁছে দেয়। পুনরায় কিছু দিন না যেতেই এখন তার কোন সন্ধান পাচ্ছিনা। আমরা জানতে পেরেছি তার সর্বশেষ লোকেশন ছিল ডেমরা থানার কোনাবাড়ি এলাকায়।
প্রশাসনের কাছে সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে , আমার ছেলেকে যাতে দ্রুত সময়ের ভিতরে উদ্ধার করে আমাদের কাছে ফিরিয়ে দেবার দাবি জানাচ্ছি।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন