ঢাকা ১১:১৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সোনারগাঁয়ে চাঁদা না পেয়ে সীমানা প্রাচীর ভেঙে জমি দখলের অপচেষ্টা

সোনারগাঁ প্রতিনিধি
সোনারগাঁ প্রতিনিধি
  • আপলোড সময় : ০৪:১৮:৫১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৭ মার্চ ২০২৪
  • / ২৭৯ বার পড়া হয়েছে

নারায়ণগঞ্জ সোনারগাঁও উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের গোলাবাড়ি এলাকায় প্রবাসীর কাছে মোটা অংকের চাঁদা দাবি করে। চাঁদা না পেয়ে বাড়ির সীমানা প্রাচীর ভেঙে জোর পুর্বক জমি দখলের অভিযোগ উঠেছে একই এলাকার ফজলুল হকের ছেলে মোজাম্মেল হক দুলালের বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী শাহনাজ পারভীন সোনারগাঁও থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, উপজেলার পিরোজপুর ইউপির জৈনপুর এলাকার ওয়ালি উল্লাহর স্ত্রী মোসাঃ শাহনাজ পারভীন গত ১৯৯৯ ইং সনে পিরোজপুর মৌজার পিরোজপুর গোলাবাড়ি এলাকায় মৃত আম্বর আলীর ছেলে মোঃ ইলিয়াসের কাছ থেকে ১৩ শতাংশ জমি ক্রয় করিয়া সরকারি খাজনা ও খারিজ পরিশোধ করিয়া জমি ভোগ দখল করে আসছেন। পরবর্তীতে ৮ শতাংশ জমির মধ্যে ২ শতাংশ জমি জোরপুর্বক দখল করে নেয় বিবাদী মোজাম্মেল হক দুলাল এবং ৬ শতাংশ দখল করে নেয় দুলালের মামা ইয়াকুব।

এরই ধারাবাহিকতায় গত মঙ্গলবার ১৯ তারিখ রাত আনুমানিক ১০টার দিকে বিবাদী ও অজ্ঞাত আরো ৫/৬ জন দেশীয় অস্ত্র সস্ত্রে সজ্জিত হয়ে শাহনাজ পারভিনের ৫ শতাংশ বাড়িতে নির্মাণকৃত সীমানা প্রাচীর ভেঙে ফেলে। এঘটনা জানতে পেরে গৃহবধূ শাহনাজ পারভীন সোনারগাঁও থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
ঘটনাস্থলে আশেপাশের প্রতিবেশীরা জানান, এ জমিটি শাহনাজ পারভীন ২০/২৫ বছর পুর্বে আম্বর আলীর ছেলে ইলিয়াসের কাছ থেকে ১৩ শতাংশ জমি ক্রয় করিয়া ভোগদখল করে আসছেন। জমি ক্রয়ের পর ইলিয়াসের ভাই ইয়াকুব ও দুলালের জোগশাজোশে ৮ শতাংশ জমি মামলার জালে ফেলে জোর পুর্বক দখল করে নেয়। বাকি ৫ শতাংশ জমি জোর করে আবারো দখলে নেয়ার জন্য রাতের অন্ধকারে শাহনাজের জমিতে নির্মানকৃত সীমানা প্রাচীর ভেঙে ফেলে। এ জমি নিয়ে মামলা মোকদ্দমাও হয়েছে শুনেছি।
জমির মালিক শাহনাজ পারভীন বলেন, ২০/২৫ বছর পুর্বে আম্বর আলীর ছেলে ইলিয়াসের কাছ থেকে ১৩ শতাংশ জমি ক্রয় করিয়া ভোগদখল করে আসছি। উল্লেখিত বিবাদীরা আমার বাড়িতে বেআইনি জনতাবদ্ধে অনাধিকার প্রবেশ করে সীমানা প্রাচীর ভেঙে ফেলেছে। আমার ৫ শতক জমি থেকে আবারো ২ শতাংশ জমি জোর করে দখলে নিতে পিরোজপুর গ্রামের আম্বর আলীর ছেলে ইয়াকুব, ফজলুল হকের ছেলে ভাগিনা মোজাম্মেল হক দুলাল, ইয়াকুবের বায়ড়া ভাই ও ফিরোজ মোল্লার ছেলে রাশেদের শেল্টারে জনি ও মাকারুল উভয় পিতা অজ্ঞাত সহ অজ্ঞাতনামা আরো ৫/৬ জন বিবাদী দেশীয় অস্ত্র নিয়ে রাতের অন্ধকারে বাড়ির দেয়াল ভেঙে ফেলে এবং ২ শতাংশ জমি না দিলে আমার কাছ থেকে বিবাদীরা ২০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। দাবিকৃত টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে বিবাদীরা আমাকে ও আমার পরিবারের সবাইকে হুমকি ধমকি দিচ্ছে। প্রশাসনের কাছে আমি সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি। এই জমি নিয়ে নারায়ণগঞ্জ বিজ্ঞ আদালতে মামলা চলমান।

এব্যাপারে মোজাম্মেল হক দুলালকে মোবাইলে ফোন করলে তিনি জানান, শাহনাজ পারভীনের সাথে জমি নিয়া সমস্যা আছে, কিন্তু বাড়ির সীমানা প্রাচীর ভাঙার সাথে আমি জড়িত না। কে বা কাহারা বাড়ির দেয়াল ভেঙেছে আমি জানিনা।
সোনারগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুজ্জামান বলেন, সীমানা প্রাচীর ভেঙে ফেলার বিষয়ে অভিযোগ নেয়া হেয়েছে। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

সোনারগাঁয়ে চাঁদা না পেয়ে সীমানা প্রাচীর ভেঙে জমি দখলের অপচেষ্টা

আপলোড সময় : ০৪:১৮:৫১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৭ মার্চ ২০২৪

নারায়ণগঞ্জ সোনারগাঁও উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের গোলাবাড়ি এলাকায় প্রবাসীর কাছে মোটা অংকের চাঁদা দাবি করে। চাঁদা না পেয়ে বাড়ির সীমানা প্রাচীর ভেঙে জোর পুর্বক জমি দখলের অভিযোগ উঠেছে একই এলাকার ফজলুল হকের ছেলে মোজাম্মেল হক দুলালের বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী শাহনাজ পারভীন সোনারগাঁও থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, উপজেলার পিরোজপুর ইউপির জৈনপুর এলাকার ওয়ালি উল্লাহর স্ত্রী মোসাঃ শাহনাজ পারভীন গত ১৯৯৯ ইং সনে পিরোজপুর মৌজার পিরোজপুর গোলাবাড়ি এলাকায় মৃত আম্বর আলীর ছেলে মোঃ ইলিয়াসের কাছ থেকে ১৩ শতাংশ জমি ক্রয় করিয়া সরকারি খাজনা ও খারিজ পরিশোধ করিয়া জমি ভোগ দখল করে আসছেন। পরবর্তীতে ৮ শতাংশ জমির মধ্যে ২ শতাংশ জমি জোরপুর্বক দখল করে নেয় বিবাদী মোজাম্মেল হক দুলাল এবং ৬ শতাংশ দখল করে নেয় দুলালের মামা ইয়াকুব।

এরই ধারাবাহিকতায় গত মঙ্গলবার ১৯ তারিখ রাত আনুমানিক ১০টার দিকে বিবাদী ও অজ্ঞাত আরো ৫/৬ জন দেশীয় অস্ত্র সস্ত্রে সজ্জিত হয়ে শাহনাজ পারভিনের ৫ শতাংশ বাড়িতে নির্মাণকৃত সীমানা প্রাচীর ভেঙে ফেলে। এঘটনা জানতে পেরে গৃহবধূ শাহনাজ পারভীন সোনারগাঁও থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
ঘটনাস্থলে আশেপাশের প্রতিবেশীরা জানান, এ জমিটি শাহনাজ পারভীন ২০/২৫ বছর পুর্বে আম্বর আলীর ছেলে ইলিয়াসের কাছ থেকে ১৩ শতাংশ জমি ক্রয় করিয়া ভোগদখল করে আসছেন। জমি ক্রয়ের পর ইলিয়াসের ভাই ইয়াকুব ও দুলালের জোগশাজোশে ৮ শতাংশ জমি মামলার জালে ফেলে জোর পুর্বক দখল করে নেয়। বাকি ৫ শতাংশ জমি জোর করে আবারো দখলে নেয়ার জন্য রাতের অন্ধকারে শাহনাজের জমিতে নির্মানকৃত সীমানা প্রাচীর ভেঙে ফেলে। এ জমি নিয়ে মামলা মোকদ্দমাও হয়েছে শুনেছি।
জমির মালিক শাহনাজ পারভীন বলেন, ২০/২৫ বছর পুর্বে আম্বর আলীর ছেলে ইলিয়াসের কাছ থেকে ১৩ শতাংশ জমি ক্রয় করিয়া ভোগদখল করে আসছি। উল্লেখিত বিবাদীরা আমার বাড়িতে বেআইনি জনতাবদ্ধে অনাধিকার প্রবেশ করে সীমানা প্রাচীর ভেঙে ফেলেছে। আমার ৫ শতক জমি থেকে আবারো ২ শতাংশ জমি জোর করে দখলে নিতে পিরোজপুর গ্রামের আম্বর আলীর ছেলে ইয়াকুব, ফজলুল হকের ছেলে ভাগিনা মোজাম্মেল হক দুলাল, ইয়াকুবের বায়ড়া ভাই ও ফিরোজ মোল্লার ছেলে রাশেদের শেল্টারে জনি ও মাকারুল উভয় পিতা অজ্ঞাত সহ অজ্ঞাতনামা আরো ৫/৬ জন বিবাদী দেশীয় অস্ত্র নিয়ে রাতের অন্ধকারে বাড়ির দেয়াল ভেঙে ফেলে এবং ২ শতাংশ জমি না দিলে আমার কাছ থেকে বিবাদীরা ২০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। দাবিকৃত টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে বিবাদীরা আমাকে ও আমার পরিবারের সবাইকে হুমকি ধমকি দিচ্ছে। প্রশাসনের কাছে আমি সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি। এই জমি নিয়ে নারায়ণগঞ্জ বিজ্ঞ আদালতে মামলা চলমান।

এব্যাপারে মোজাম্মেল হক দুলালকে মোবাইলে ফোন করলে তিনি জানান, শাহনাজ পারভীনের সাথে জমি নিয়া সমস্যা আছে, কিন্তু বাড়ির সীমানা প্রাচীর ভাঙার সাথে আমি জড়িত না। কে বা কাহারা বাড়ির দেয়াল ভেঙেছে আমি জানিনা।
সোনারগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুজ্জামান বলেন, সীমানা প্রাচীর ভেঙে ফেলার বিষয়ে অভিযোগ নেয়া হেয়েছে। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন