ঢাকা ০৪:৪১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন প্রতিদ্বন্দী প্রার্থী রানুর ভরাডুবি বিপুল ভোটে বিজয়ী হাবিব

মোঃ আবু কাওছার মিঠু ( রূপগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ )
মোঃ আবু কাওছার মিঠু ( রূপগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ )
  • আপলোড সময় : ০৯:৪৮:৫৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪
  • / ২৭০ বার পড়া হয়েছে

দ্বিতীয় ধাপে ২১ মে রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে দোয়াত কলম প্রতীকের প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়েছেন। হাবিবুর রহমান হাবিব (১ লাখ ১৮ হাজার ৬৪১) ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী আনারস প্রতীকের আবু হোসেন ভুইয়া রানু (২১ হাজার ২৫৪ ) ভোট পেয়ে পরাজিত হয়েছেন।
ফলাফল ঘোষণা করেন, রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সরকারি রিটার্নিং অফিসার আহসান মাহমুদ রাসেল।
মঙ্গলবার সকাল ৮ থেকে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। ভোট চলাকালীন সময় কোথাও কোন বিশৃঙ্খলা বা অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

এছাড়া কোন প্রতিদদ্বন্ধি না থাকায় বে-সরকারী ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন ভাইস চেয়ারম্যান পদে রংধনু গ্রুপের পরিচালক ও জেলা পরিষদের সাবেক সদস্য আলহাজ্ব মিজানুর রহমান মিজান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী যুবমহিলা লীগের সভাপতি ফেরদৌসি আক্তার রিয়া।

জানা গেছে, ২১ মে রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে উৎসবমূখর পরিবেশ বিরাজ করেছে। এবারের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দীতা করেছেন উপজেলা আওয়ামীলীগের কার্যকরী সদস্য আলহাজ¦ হাবিবুর রহমান হাবিব দোয়াত কলম প্রতীকে ও রূপগঞ্জ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আবু হোসেন ভুইয়া রানু আনারস প্রতীকে নির্বাচন করেছেন। তবে হাবিব সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজী (বীর প্রতীক) সঙ্গে উন্নয়ন কাজে নিয়োজিত থাকায় এবং সামনে দ্বিগুন উন্নয়নের জন্য এবার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে আলহাজ¦ হাবিবুর রহমান হাবিবকেই চেয়েছিলো স্থানীয় ভোটররা। ভোটের দিনও কথা রেখেছে ভোটররা। হাবিবের বিপুল ভোটে জয়ই তার প্রমাণ।

এদিকে, নির্বাচনে ভোটের মাঠে ভরাডুবির শঙ্কা ছিল আনারস প্রতীকের প্রার্থী আবু হোসেন ভুইয়া রানু। এ কারণে তিনি নির্বাচনে ভরাডুবির কথা চিন্তা করে প্রচার প্রচারনা চালাননি। সেই শঙ্কাই বাস্তবে রূপ নিলো আবু হোসেন ভুইয়া রানুর ক্ষেত্রে। (৯৭ হাজার ৩৮৭ ) ভোটের ব্যবধানে রানুর পরাজয়ই তার প্রমাণ।

ভোটাররা জানান, সাবেক পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী এবং নারায়ণগঞ্জ-১ (রূপগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজী (বীর প্রতীক) এর নেতৃত্বে গত ১৫ বছরে রূপগঞ্জে রাস্তাঘাট, ফ্লাইওভার নির্মাণ, সেতু নির্মাণ, স্কুল-কলেজ, মসজিদ মাদ্রাসা, মন্দিরের নতুন ভবন নির্মাণ, নতুন নতুন শিল্প কলকারখানা গড়ে উঠা, কর্মসংস্থান বৃদ্ধি, শিক্ষার মানউন্নয়নসহ নানা উন্নয়ন মুলক কর্মকান্ড হয়েছে। এতে দিনরাত অক্লান্ত পরিশ্রম করতে হয়েছে। এ পরিশ্রমের অংশীদার হয়েছেন আলহাজ্ব হাবিবুর রহমান হাবিব। তিনি গোলাম দস্তগীর গাজীর সঙ্গে থেকে রাত দিন পরিশ্রম করে এ উন্নয়ন কাজ এগিয়ে নিয়ে গেছেন। এ জন্য এসব উন্নয়নে হাবিবুর রহমান হাবিবের অবদান রয়েছে। তাই হাবিবুর রহমান হাবিবকেই ভোট দিয়ে উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান হিসবে বিজয়ী করেছি।

রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন অফিসার তাজাল্লী ইসলাম বলেন, কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়া রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিপুল পরিমাণ আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা ছিলো।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন প্রতিদ্বন্দী প্রার্থী রানুর ভরাডুবি বিপুল ভোটে বিজয়ী হাবিব

আপলোড সময় : ০৯:৪৮:৫৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪

দ্বিতীয় ধাপে ২১ মে রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে দোয়াত কলম প্রতীকের প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়েছেন। হাবিবুর রহমান হাবিব (১ লাখ ১৮ হাজার ৬৪১) ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী আনারস প্রতীকের আবু হোসেন ভুইয়া রানু (২১ হাজার ২৫৪ ) ভোট পেয়ে পরাজিত হয়েছেন।
ফলাফল ঘোষণা করেন, রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সরকারি রিটার্নিং অফিসার আহসান মাহমুদ রাসেল।
মঙ্গলবার সকাল ৮ থেকে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। ভোট চলাকালীন সময় কোথাও কোন বিশৃঙ্খলা বা অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

এছাড়া কোন প্রতিদদ্বন্ধি না থাকায় বে-সরকারী ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন ভাইস চেয়ারম্যান পদে রংধনু গ্রুপের পরিচালক ও জেলা পরিষদের সাবেক সদস্য আলহাজ্ব মিজানুর রহমান মিজান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী যুবমহিলা লীগের সভাপতি ফেরদৌসি আক্তার রিয়া।

জানা গেছে, ২১ মে রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে উৎসবমূখর পরিবেশ বিরাজ করেছে। এবারের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দীতা করেছেন উপজেলা আওয়ামীলীগের কার্যকরী সদস্য আলহাজ¦ হাবিবুর রহমান হাবিব দোয়াত কলম প্রতীকে ও রূপগঞ্জ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আবু হোসেন ভুইয়া রানু আনারস প্রতীকে নির্বাচন করেছেন। তবে হাবিব সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজী (বীর প্রতীক) সঙ্গে উন্নয়ন কাজে নিয়োজিত থাকায় এবং সামনে দ্বিগুন উন্নয়নের জন্য এবার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে আলহাজ¦ হাবিবুর রহমান হাবিবকেই চেয়েছিলো স্থানীয় ভোটররা। ভোটের দিনও কথা রেখেছে ভোটররা। হাবিবের বিপুল ভোটে জয়ই তার প্রমাণ।

এদিকে, নির্বাচনে ভোটের মাঠে ভরাডুবির শঙ্কা ছিল আনারস প্রতীকের প্রার্থী আবু হোসেন ভুইয়া রানু। এ কারণে তিনি নির্বাচনে ভরাডুবির কথা চিন্তা করে প্রচার প্রচারনা চালাননি। সেই শঙ্কাই বাস্তবে রূপ নিলো আবু হোসেন ভুইয়া রানুর ক্ষেত্রে। (৯৭ হাজার ৩৮৭ ) ভোটের ব্যবধানে রানুর পরাজয়ই তার প্রমাণ।

ভোটাররা জানান, সাবেক পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী এবং নারায়ণগঞ্জ-১ (রূপগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজী (বীর প্রতীক) এর নেতৃত্বে গত ১৫ বছরে রূপগঞ্জে রাস্তাঘাট, ফ্লাইওভার নির্মাণ, সেতু নির্মাণ, স্কুল-কলেজ, মসজিদ মাদ্রাসা, মন্দিরের নতুন ভবন নির্মাণ, নতুন নতুন শিল্প কলকারখানা গড়ে উঠা, কর্মসংস্থান বৃদ্ধি, শিক্ষার মানউন্নয়নসহ নানা উন্নয়ন মুলক কর্মকান্ড হয়েছে। এতে দিনরাত অক্লান্ত পরিশ্রম করতে হয়েছে। এ পরিশ্রমের অংশীদার হয়েছেন আলহাজ্ব হাবিবুর রহমান হাবিব। তিনি গোলাম দস্তগীর গাজীর সঙ্গে থেকে রাত দিন পরিশ্রম করে এ উন্নয়ন কাজ এগিয়ে নিয়ে গেছেন। এ জন্য এসব উন্নয়নে হাবিবুর রহমান হাবিবের অবদান রয়েছে। তাই হাবিবুর রহমান হাবিবকেই ভোট দিয়ে উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান হিসবে বিজয়ী করেছি।

রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন অফিসার তাজাল্লী ইসলাম বলেন, কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়া রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিপুল পরিমাণ আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা ছিলো।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন