ঢাকা ০৭:১৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জলাবদ্ধতা ও নাগরিক ভোগান্তি নিরসনে অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন ৬৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর বাবুল মোল্লা

মোঃ সালে আহমেদ (নিজস্ব প্রতিবেদক)
মোঃ সালে আহমেদ (নিজস্ব প্রতিবেদক)
  • আপলোড সময় : ০৮:৪৫:০৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৩১ মে ২০২৪
  • / ৩১৪ বার পড়া হয়েছে

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ৬৪ নং ওয়ার্ডের জলাবদ্ধতা ও নাগরিক ভোগান্তি নিরসনে কাজ করে যাচ্ছেন বর্তমান কাউন্সিলর আলহাজ্ব মাসুদুর রহমান মোল্লা বাবুল। গত কয়েকদিনে প্রাকৃতিক দুর্যোগ ঘূর্ণিঝড় রিমালের প্রভাবে ভারী বৃষ্টিপাতে এলাকার রাস্তাঘাট পানিতে ডুবে যাওয়ার পর নিজ ওয়ার্ডে এই কর্মকাণ্ড পরিচালনা করেন তিনি। রাস্তাঘাট ও ড্রেনের জমে থাকা পানি নিষ্কাশনে দ্রুত উদ্যোগ গ্রহণ করেন। তার দ্রুত হস্তক্ষেপের কারণে ভোগান্তির হাত থেকে রেহাই পেয়েছেন সাধারণ মানুষ। এলাকায় অত্যন্ত জনপ্রিয় ব্যক্তি আলহাজ্ব মাসুদুর রহমান মোল্লা বাবুল। বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা সংগ্রামে তাদের পরিবারের বিশাল ভূমিকা রয়েছে। তার আপন ভাই প্রয়াত বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব হাবিবুর রহমান মোল্লা এবং আরেক ভাই শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা হাফিজুর রহমান অলি।ঢাকা-৫ আসনের বর্তমান সাংসদ আলহাজ্ব মশিউর রহমান মোল্লা সজল তার বড় ভাইয়ের ছেলে।

আলহাজ মাসুদুর রহমান মোল্লা বাবুল এই এলাকায় রাস্তাঘাটের উন্নয়ন, জলাবদ্ধতা নিরসন, মশক নিবারণ, সামাজিক ন্যায়বিচার নিশ্চিত সহ নানা ধরনের সংস্কার মূলক কর্মকাণ্ড করে প্রশংসায় ভাসছেন।ডিএসসিসি ৬৪ নম্বর ওয়ার্ড যাত্রাবাড়ী ও ডেমরা থানায় অবস্থিত। সাবেক মাতুয়াইল ইউপির ৪নং ওয়ার্ডের কোনাপাড়া, পুরাতন পাড়াডগাইর, ৫নং ওয়ার্ডের আইআর টিউবস ফ্যাক্টরি, ধার্মিকপাড়া, সিটি মিলস, মল্লিকপাড়া, ৬নং ওয়ার্ডের পাড়াডগাইর নতুনপাড়া এলাকা নিয়ে গঠিত হয়েছে।ওয়ার্ডে ভোটার সংখ্যা ২৪ হাজার ৫৪১ জন হলেও প্রায় লক্ষাধিক লোকের বসবাস। এই বিশাল একটি জনগোষ্ঠীর জনপ্রতিনিধি হিসেবে আলহাজ্ব মাসুদুর রহমান মোল্লা বাবুল নিবেদিত প্রাণ একজন সমাজ সেবক ও জনপ্রতিনিধি।

এ বিষয়ে মাসুদুর রহমান মোল্লা বাবুল বলেন,ওয়ার্ডবাসীকে জলাবদ্ধতার ভোগান্তি থেকে দূর করতে করতে দিন রাত পরিশ্রম করছি।প্রতিটি কর্মীকে জলাবদ্ধতা নিরসনে কাজ করার জন্য জোর তাগিদ দিচ্ছি। ওয়ার্ডবাসীর প্রতি তিনি আহবান জানান, যাতে করে বাসা বাড়ির ময়লা আর্বজনা যেখানে সেখানে না ফেলে একটি নিদিষ্ট স্থান ও ময়লা নিষ্কাশন কর্মীদের দেওয়ার আহবান জানান।শহর আমাদের তাই আমাদের ই সচেতন হতে হবে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

জলাবদ্ধতা ও নাগরিক ভোগান্তি নিরসনে অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন ৬৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর বাবুল মোল্লা

আপলোড সময় : ০৮:৪৫:০৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৩১ মে ২০২৪

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের ৬৪ নং ওয়ার্ডের জলাবদ্ধতা ও নাগরিক ভোগান্তি নিরসনে কাজ করে যাচ্ছেন বর্তমান কাউন্সিলর আলহাজ্ব মাসুদুর রহমান মোল্লা বাবুল। গত কয়েকদিনে প্রাকৃতিক দুর্যোগ ঘূর্ণিঝড় রিমালের প্রভাবে ভারী বৃষ্টিপাতে এলাকার রাস্তাঘাট পানিতে ডুবে যাওয়ার পর নিজ ওয়ার্ডে এই কর্মকাণ্ড পরিচালনা করেন তিনি। রাস্তাঘাট ও ড্রেনের জমে থাকা পানি নিষ্কাশনে দ্রুত উদ্যোগ গ্রহণ করেন। তার দ্রুত হস্তক্ষেপের কারণে ভোগান্তির হাত থেকে রেহাই পেয়েছেন সাধারণ মানুষ। এলাকায় অত্যন্ত জনপ্রিয় ব্যক্তি আলহাজ্ব মাসুদুর রহমান মোল্লা বাবুল। বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা সংগ্রামে তাদের পরিবারের বিশাল ভূমিকা রয়েছে। তার আপন ভাই প্রয়াত বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব হাবিবুর রহমান মোল্লা এবং আরেক ভাই শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা হাফিজুর রহমান অলি।ঢাকা-৫ আসনের বর্তমান সাংসদ আলহাজ্ব মশিউর রহমান মোল্লা সজল তার বড় ভাইয়ের ছেলে।

আলহাজ মাসুদুর রহমান মোল্লা বাবুল এই এলাকায় রাস্তাঘাটের উন্নয়ন, জলাবদ্ধতা নিরসন, মশক নিবারণ, সামাজিক ন্যায়বিচার নিশ্চিত সহ নানা ধরনের সংস্কার মূলক কর্মকাণ্ড করে প্রশংসায় ভাসছেন।ডিএসসিসি ৬৪ নম্বর ওয়ার্ড যাত্রাবাড়ী ও ডেমরা থানায় অবস্থিত। সাবেক মাতুয়াইল ইউপির ৪নং ওয়ার্ডের কোনাপাড়া, পুরাতন পাড়াডগাইর, ৫নং ওয়ার্ডের আইআর টিউবস ফ্যাক্টরি, ধার্মিকপাড়া, সিটি মিলস, মল্লিকপাড়া, ৬নং ওয়ার্ডের পাড়াডগাইর নতুনপাড়া এলাকা নিয়ে গঠিত হয়েছে।ওয়ার্ডে ভোটার সংখ্যা ২৪ হাজার ৫৪১ জন হলেও প্রায় লক্ষাধিক লোকের বসবাস। এই বিশাল একটি জনগোষ্ঠীর জনপ্রতিনিধি হিসেবে আলহাজ্ব মাসুদুর রহমান মোল্লা বাবুল নিবেদিত প্রাণ একজন সমাজ সেবক ও জনপ্রতিনিধি।

এ বিষয়ে মাসুদুর রহমান মোল্লা বাবুল বলেন,ওয়ার্ডবাসীকে জলাবদ্ধতার ভোগান্তি থেকে দূর করতে করতে দিন রাত পরিশ্রম করছি।প্রতিটি কর্মীকে জলাবদ্ধতা নিরসনে কাজ করার জন্য জোর তাগিদ দিচ্ছি। ওয়ার্ডবাসীর প্রতি তিনি আহবান জানান, যাতে করে বাসা বাড়ির ময়লা আর্বজনা যেখানে সেখানে না ফেলে একটি নিদিষ্ট স্থান ও ময়লা নিষ্কাশন কর্মীদের দেওয়ার আহবান জানান।শহর আমাদের তাই আমাদের ই সচেতন হতে হবে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন