ঢাকা ১২:১০ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আড়াইহাজারে সন্ত্রসী হামলার অভিযোগ করায় বাদীর পরিবারের উপর হামলা

রফিকুল ইসলাম রানা (নিজস্ব প্রতিবেদক)
রফিকুল ইসলাম রানা (নিজস্ব প্রতিবেদক)
  • আপলোড সময় : ১১:১৫:৪৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪
  • / ২৪৯ বার পড়া হয়েছে

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার গোপালদী পৌরসভার রামচন্দ্রদী এলাকায়
সন্ত্রাসী হামলায় তিন জনকে আহত করার বিষয়ে থানায় অভিযোগ করায় বাদীর
বাড়ীতে ভাড়া করা লোকজন নিয়ে সন্ত্রাসী হামলা করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। এ
ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছে বাদী আলাউদ্দিনের স্ত্রী আমিরজান (৩৫)। এর আগে
১০ জুন দুপুরে আলাউদ্দিনের বাড়ীতে বৃষ্টির পানি রাস্তায় ফেলার করাণে হামলা করে
বাদীসহ তার স্ত্রী ও ছেলে আজিজুর রহমান (২২) কে পিটিয়ে জখম করে
প্রতিবেশি দুলাল গং।
অভিযোগের বাদী দুলাল জানান, ১০ জুনের ঘটনায় তিনি বাদী হয়ে আড়াইহাজার
থানায় দুলালগংদের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। থানার এস
আই রিপন অভিযোগের তদন্ত করে আসলে ওই দিনই দিবাগত রাতে দুলালগং বাইরে
থেকে ভাড়া করে লোকজন আনে এবং ভাড়া করা লোজনদেরকে ডিবির লোক পরিচয়
দিয়ে আবারো আলাউদ্দিনের পরিবারের উপর হামলা করে। এ সময় তারা বাদীর স্ত্রী
আমিরজানকে আবারো পিটিয়ে জখম করে। সংবাদ পেয়ে গোপালদী ফাঁড়ি পুলিশ
ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে দুলালগংদের সাতজনকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। পরে
সামাজিক মাতাব্বরদের পরামর্শে আলাউদ্দিন, তার ছেলে আজিজুর রহমান ও
ভাগিনা ফারুক পরবর্তী অবস্থা জানার জন্য থানায় গেলে ফাঁড়ি পুলিশ রহস্যজনক
কারণে অভিযুক্তদের সাথে বাদীসহ তাদের তিনজনকেও আটক করে থানায় পাঠায়। পরে
সমঝোতার অঙ্গীকার রেখে তাদেরকে ছেড়ে দেয়া হয়।
এ বিষয়ে গোপালদী ফাঁড়ি পুলিশের ইনচার্জ ইনস্পেক্টর আতাউরের সাথে কথা
হলে তিনি জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য উভয় পক্ষের লোকজনকেই
আটক করতে হয়েছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

আড়াইহাজারে সন্ত্রসী হামলার অভিযোগ করায় বাদীর পরিবারের উপর হামলা

আপলোড সময় : ১১:১৫:৪৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার উপজেলার গোপালদী পৌরসভার রামচন্দ্রদী এলাকায়
সন্ত্রাসী হামলায় তিন জনকে আহত করার বিষয়ে থানায় অভিযোগ করায় বাদীর
বাড়ীতে ভাড়া করা লোকজন নিয়ে সন্ত্রাসী হামলা করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। এ
ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছে বাদী আলাউদ্দিনের স্ত্রী আমিরজান (৩৫)। এর আগে
১০ জুন দুপুরে আলাউদ্দিনের বাড়ীতে বৃষ্টির পানি রাস্তায় ফেলার করাণে হামলা করে
বাদীসহ তার স্ত্রী ও ছেলে আজিজুর রহমান (২২) কে পিটিয়ে জখম করে
প্রতিবেশি দুলাল গং।
অভিযোগের বাদী দুলাল জানান, ১০ জুনের ঘটনায় তিনি বাদী হয়ে আড়াইহাজার
থানায় দুলালগংদের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। থানার এস
আই রিপন অভিযোগের তদন্ত করে আসলে ওই দিনই দিবাগত রাতে দুলালগং বাইরে
থেকে ভাড়া করে লোকজন আনে এবং ভাড়া করা লোজনদেরকে ডিবির লোক পরিচয়
দিয়ে আবারো আলাউদ্দিনের পরিবারের উপর হামলা করে। এ সময় তারা বাদীর স্ত্রী
আমিরজানকে আবারো পিটিয়ে জখম করে। সংবাদ পেয়ে গোপালদী ফাঁড়ি পুলিশ
ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে দুলালগংদের সাতজনকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। পরে
সামাজিক মাতাব্বরদের পরামর্শে আলাউদ্দিন, তার ছেলে আজিজুর রহমান ও
ভাগিনা ফারুক পরবর্তী অবস্থা জানার জন্য থানায় গেলে ফাঁড়ি পুলিশ রহস্যজনক
কারণে অভিযুক্তদের সাথে বাদীসহ তাদের তিনজনকেও আটক করে থানায় পাঠায়। পরে
সমঝোতার অঙ্গীকার রেখে তাদেরকে ছেড়ে দেয়া হয়।
এ বিষয়ে গোপালদী ফাঁড়ি পুলিশের ইনচার্জ ইনস্পেক্টর আতাউরের সাথে কথা
হলে তিনি জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য উভয় পক্ষের লোকজনকেই
আটক করতে হয়েছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন