ঢাকা ০৮:৪১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বরিশালের মেহেন্দীগঞ্জে পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে হামলায় আহত ৩, প্রকাশ্যে ঘুরছে আসামীরা

মোঃ সালে আহমেদ (নিজস্ব প্রতিবেদক)
মোঃ সালে আহমেদ (নিজস্ব প্রতিবেদক)
  • আপলোড সময় : ০৫:০৩:০৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • / ৬২৮ বার পড়া হয়েছে

বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জে পাওনা টাকা চাওয়ায় একই পরিবারের তিন সদস্যকে পিটিয়ে যখম করেছে প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসীরা বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত শুক্রবার (২২সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ৮ টায় আলী হোসেনের চায়ের দোকানের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হল ওই থানার ৪ নং ওয়ার্ডের চর খা কাটা চানপুর গ্রামের বাসিন্দা মোঃ মোশারফ হোসেন খান(৬০) তার ছেলে মোঃ মারুফ খান (২৫)এবং স্ত্রী মোমেনা বেগম(৫৫) বর্তমানে আহত মারুফ খান মুমূর্ষ অবস্থায় বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।আহত মোশারফ হোসেনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে এবং তার স্ত্রীকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়।

একই পরিবারের তিন সদস্যকে মারধরের ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। হামলাকারীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেছে স্থানীয়রা।

আহত সূত্রে জানা যায়, মারুফ খান নিজ এলাকায় অটো গ্যারেজ করে দীর্ঘদিন যাবত ভাড়া দেয় সেখানে একই এলাকার বাসিন্দা নান্নু সরদার অটো গাড়ি রাখে। প্রায় এক বছর পূর্বে অটো গাড়ি রাখার ২০ হাজার টাকা পায় ভুক্তভোগী মারুফ খান। সেই টাকা চাইলে আজ না কাল বলে টালবাহানা করতে থাকে নান্নু সরদার। ঘটনার আগের দিন সেই টাকা চাইতে গেলে সন্ধ্যার সময় তাকে মারধর করে। বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করলেও পরের দিন পূর্বপরিকল্পিতভাবে নান্নু সরদার ,খোকা সরদার, সেলিম, রিয়াজ ,রাজু ,আকাশ সহ অজ্ঞাত ৫/৬ জন সন্ত্রাসীরা এ হামলা চালায়।

এ সময় লাঠির আঘাতে মারুফ খানের সারা শরীরে নীলা ফুল জখম হয়। এ সময় তার চিৎকার শুনে তার বাবা-মা ছুটে আসলে তাদেরকেও মারধর করে । এ সময় ভুক্তভোগীর সাথে থাকা একটি মোবাইল ফোন ও ১৮ হাজার টাকা ছিনতাই করে নিয়ে যাওয়ারও অভিযোগ পাওয়া গেছে।

পরে স্থানীয়রা আহত মারুফ খান কে উদ্ধার করে তাৎক্ষণিকভাবে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে । সেখানে তার অবস্থান অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য শেবাচিমে প্রেরণ করা হয়।
বর্তমানে তিনি এ হাসপাতালের পুরুষ সার্জারি ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছে ।

এ বিষয়ে মেহেন্দীগঞ্জ থানায় অভিযুক্ত ১.নান্নু সরদার(৪৫),পিতা-মান্নান সরদার ২.খোকা সরদার (২৫),পিতা-নান্নু সরদার ৩.সেলিম সরদার(৩০),পিতা-বেলাল সরদার, ৪.রিয়াজ সরদার(২৫),পিতা-মন্নান সরদার ৫. আকাশ সরদার(৩০), পিতা-পিন্টু সরদার,৬.রাজু সরদার(৩০),পিতা-মন্নান সরদার ৭.রাব্বি সরদার(২৩),পিতা-নান্নু সরদারের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

আসামীরা এলাকায় প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়ালে ও কাউকে গ্রেফতার করতে পারে নি মেহেন্দীগঞ্জ থানা পুলিশ।আসামি ধরতে পুলিশের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ করেন বাদী মারুফ খান।আসামীরা বিভিন্ন ভাবে হুমকি প্রদান করে যাচ্ছে।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত নান্নু সরদারের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তাকে পাওয়া যায় নি।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মোশফিকুর রহমান বলেন,হামলাকারীরা পলাতক রয়েছেন। তাদের আটকের চেষ্টা চলছে।

মেহেন্দীগঞ্জ থানার ওসি মোঃ শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

বরিশালের মেহেন্দীগঞ্জে পাওনা টাকা চাইতে গিয়ে হামলায় আহত ৩, প্রকাশ্যে ঘুরছে আসামীরা

আপলোড সময় : ০৫:০৩:০৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩

বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জে পাওনা টাকা চাওয়ায় একই পরিবারের তিন সদস্যকে পিটিয়ে যখম করেছে প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসীরা বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত শুক্রবার (২২সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ৮ টায় আলী হোসেনের চায়ের দোকানের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হল ওই থানার ৪ নং ওয়ার্ডের চর খা কাটা চানপুর গ্রামের বাসিন্দা মোঃ মোশারফ হোসেন খান(৬০) তার ছেলে মোঃ মারুফ খান (২৫)এবং স্ত্রী মোমেনা বেগম(৫৫) বর্তমানে আহত মারুফ খান মুমূর্ষ অবস্থায় বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।আহত মোশারফ হোসেনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে এবং তার স্ত্রীকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়।

একই পরিবারের তিন সদস্যকে মারধরের ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। হামলাকারীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেছে স্থানীয়রা।

আহত সূত্রে জানা যায়, মারুফ খান নিজ এলাকায় অটো গ্যারেজ করে দীর্ঘদিন যাবত ভাড়া দেয় সেখানে একই এলাকার বাসিন্দা নান্নু সরদার অটো গাড়ি রাখে। প্রায় এক বছর পূর্বে অটো গাড়ি রাখার ২০ হাজার টাকা পায় ভুক্তভোগী মারুফ খান। সেই টাকা চাইলে আজ না কাল বলে টালবাহানা করতে থাকে নান্নু সরদার। ঘটনার আগের দিন সেই টাকা চাইতে গেলে সন্ধ্যার সময় তাকে মারধর করে। বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করলেও পরের দিন পূর্বপরিকল্পিতভাবে নান্নু সরদার ,খোকা সরদার, সেলিম, রিয়াজ ,রাজু ,আকাশ সহ অজ্ঞাত ৫/৬ জন সন্ত্রাসীরা এ হামলা চালায়।

এ সময় লাঠির আঘাতে মারুফ খানের সারা শরীরে নীলা ফুল জখম হয়। এ সময় তার চিৎকার শুনে তার বাবা-মা ছুটে আসলে তাদেরকেও মারধর করে । এ সময় ভুক্তভোগীর সাথে থাকা একটি মোবাইল ফোন ও ১৮ হাজার টাকা ছিনতাই করে নিয়ে যাওয়ারও অভিযোগ পাওয়া গেছে।

পরে স্থানীয়রা আহত মারুফ খান কে উদ্ধার করে তাৎক্ষণিকভাবে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে । সেখানে তার অবস্থান অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য শেবাচিমে প্রেরণ করা হয়।
বর্তমানে তিনি এ হাসপাতালের পুরুষ সার্জারি ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছে ।

এ বিষয়ে মেহেন্দীগঞ্জ থানায় অভিযুক্ত ১.নান্নু সরদার(৪৫),পিতা-মান্নান সরদার ২.খোকা সরদার (২৫),পিতা-নান্নু সরদার ৩.সেলিম সরদার(৩০),পিতা-বেলাল সরদার, ৪.রিয়াজ সরদার(২৫),পিতা-মন্নান সরদার ৫. আকাশ সরদার(৩০), পিতা-পিন্টু সরদার,৬.রাজু সরদার(৩০),পিতা-মন্নান সরদার ৭.রাব্বি সরদার(২৩),পিতা-নান্নু সরদারের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

আসামীরা এলাকায় প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়ালে ও কাউকে গ্রেফতার করতে পারে নি মেহেন্দীগঞ্জ থানা পুলিশ।আসামি ধরতে পুলিশের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ করেন বাদী মারুফ খান।আসামীরা বিভিন্ন ভাবে হুমকি প্রদান করে যাচ্ছে।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত নান্নু সরদারের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তাকে পাওয়া যায় নি।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মোশফিকুর রহমান বলেন,হামলাকারীরা পলাতক রয়েছেন। তাদের আটকের চেষ্টা চলছে।

মেহেন্দীগঞ্জ থানার ওসি মোঃ শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন