ঢাকা ০৪:১৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আগামী ২৮ অক্টোবর জামাত-বিএনপি মরণকামড় দিবে——-মির্জা আজম

মো: সাদ্দাম হোসেন মুন্না খান (নিজস্ব প্রতিবেদক)
মো: সাদ্দাম হোসেন মুন্না খান (নিজস্ব প্রতিবেদক)
  • আপলোড সময় : ০৫:২৪:১২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টোবর ২০২৩
  • / ২৮০ বার পড়া হয়েছে

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম বলেছেন, সরকারের পতন ও শেখ হাসিনাকে ক্ষমতাচ্যুত করার জন্য আগামী ২৮ অক্টোবর জামাত-বিএনপি মহাসমাবেশের নামে ঢাকা অবরোধ কর্মসূচি দিয়েছে। নাম দিয়েছে মহাসমাবেশ কিন্তু এটা হল তাদের অবরোধ। সে অবরোধে যা যা করার দরকার তারা তাই করবে এবং এটা তাদের মরণকামড়। সেই কারণে আমরাও সিদ্ধান্ত নিয়েছি যে তাদের ঢাকা দখল করতে দিবো না, ২৮ তারিখে আমরাও সমাবেশ করব। সেই সমাবেশে আমরা চাইবো তাদের চেয়ে বেশি জন সমাবেশ করার জন্য।
বৃহস্পতিবার (১৯ অক্টোবর) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ সার্কিট হাউজের সম্মেলন কক্ষে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় অংশ নিয়ে এসব কথা বলেন তিনি।
জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই এর সভাপতিত্বে উক্ত বর্ধিত সভায় বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী এমপি, নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান, নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান চন্দন শীল, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত শহিদ মো: বাদল, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খোকন সাহাসহ জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।
এসময় তিনি বলেন, জামাত-বিএনপি আজকে মীরজাফরের ভূমিকায়। তারা নির্বাচন করে ক্ষমতায় যেতে চায় না। তারা বিদেশি শক্তির কাছে বাংলাদেশকে তুলে দিতে চায়। তারা ক্ষমতায় যেতে চায় না তারা একটি অসংবিধানিক সরকারকে ক্ষমতায় আনতে চায়। তাদের দেশবিরোধি সকল ষড়যন্ত্র আমরা মোকাবেলা করেছি। তারা ২০২২ সালে ঘোষণা দিয়েছিল ১০ ডিসেম্বরের পর দেশ চলবে খালেদা জিয়ার কথায়। তাদের ঘোষণায় আমাদের ঘুম ভেঙ্গে গিয়েছিল। পরে তারা লেজ গুঁটিয়ে পালিয়েছিল গোলাপবাগের স্টেডিয়ামে।
তিনি আরও বলেন, জিয়াউর রহমান সেক্টর কমান্ডার হয়েও কোন সরাসরি যুদ্ধে অংশ নেননি। জিয়া বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারী আর তার ছেলে তারেক রহমান শেখ হাসিনাকে হত্যা করতে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা চালিয়েছিল। তারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধ্বংস করে পাকিস্তানি ভাবধারায় দেশ চালিয়েছিল। জামায়াত নেতা যুদ্ধাপরাধী গোলাম আযমকে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব দিয়েছিল, রাজাকার শাহ আজিজকে প্রধানমন্ত্রী বানিয়েছিল।
মির্জা আজম বলেন, তারা শেখ হাসিনাকে ক্ষমতাচ্যুত করতে চায়। আজকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে আর জামাত বিএনপি চায় বাংলাদেশকে পিছনে টেনে নিয়ে যেতে। ওরা এখন দিন তারিখ ঠিক করে দিচ্ছে যে তারা শেখ হাসিনাকে ক্ষমতাচ্যুত করবে। তাহলে আমরা যারা আওয়ামী লীগ করি তারা কী এখানে বসে থাকবো। শেখ হাসিনাকে ক্ষমতাচ্যুত করতে তারা যে কর্মসূচি দিয়েছে ঢাকা অবরোধের সেদিন আমরাও ঢাকা দখলে রাখবো। ঢাকার সবচেয়ে পার্শ্ববর্তী জেলা নারায়ণগঞ্জ। আগামী ২৮ তারিখ আমাদের সমাবেশ বায়তুল মোকাররম দক্ষিণ গেট। ফ্লাইওভার থেকে তিন মিনিটে যাওয়া যায়। শাপলা চত্বরও কাছাকাছি। নারায়ণগঞ্জ ঢাকার সবচেয়ে কাছে। আশা করি নারায়ণগঞ্জ থেকে আমাদের সমাবেশে সবচেয়ে বড় সাপোর্ট যাবে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

আগামী ২৮ অক্টোবর জামাত-বিএনপি মরণকামড় দিবে——-মির্জা আজম

আপলোড সময় : ০৫:২৪:১২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টোবর ২০২৩

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম বলেছেন, সরকারের পতন ও শেখ হাসিনাকে ক্ষমতাচ্যুত করার জন্য আগামী ২৮ অক্টোবর জামাত-বিএনপি মহাসমাবেশের নামে ঢাকা অবরোধ কর্মসূচি দিয়েছে। নাম দিয়েছে মহাসমাবেশ কিন্তু এটা হল তাদের অবরোধ। সে অবরোধে যা যা করার দরকার তারা তাই করবে এবং এটা তাদের মরণকামড়। সেই কারণে আমরাও সিদ্ধান্ত নিয়েছি যে তাদের ঢাকা দখল করতে দিবো না, ২৮ তারিখে আমরাও সমাবেশ করব। সেই সমাবেশে আমরা চাইবো তাদের চেয়ে বেশি জন সমাবেশ করার জন্য।
বৃহস্পতিবার (১৯ অক্টোবর) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ সার্কিট হাউজের সম্মেলন কক্ষে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় অংশ নিয়ে এসব কথা বলেন তিনি।
জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই এর সভাপতিত্বে উক্ত বর্ধিত সভায় বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী এমপি, নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান, নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান চন্দন শীল, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত শহিদ মো: বাদল, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খোকন সাহাসহ জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।
এসময় তিনি বলেন, জামাত-বিএনপি আজকে মীরজাফরের ভূমিকায়। তারা নির্বাচন করে ক্ষমতায় যেতে চায় না। তারা বিদেশি শক্তির কাছে বাংলাদেশকে তুলে দিতে চায়। তারা ক্ষমতায় যেতে চায় না তারা একটি অসংবিধানিক সরকারকে ক্ষমতায় আনতে চায়। তাদের দেশবিরোধি সকল ষড়যন্ত্র আমরা মোকাবেলা করেছি। তারা ২০২২ সালে ঘোষণা দিয়েছিল ১০ ডিসেম্বরের পর দেশ চলবে খালেদা জিয়ার কথায়। তাদের ঘোষণায় আমাদের ঘুম ভেঙ্গে গিয়েছিল। পরে তারা লেজ গুঁটিয়ে পালিয়েছিল গোলাপবাগের স্টেডিয়ামে।
তিনি আরও বলেন, জিয়াউর রহমান সেক্টর কমান্ডার হয়েও কোন সরাসরি যুদ্ধে অংশ নেননি। জিয়া বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারী আর তার ছেলে তারেক রহমান শেখ হাসিনাকে হত্যা করতে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা চালিয়েছিল। তারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ধ্বংস করে পাকিস্তানি ভাবধারায় দেশ চালিয়েছিল। জামায়াত নেতা যুদ্ধাপরাধী গোলাম আযমকে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব দিয়েছিল, রাজাকার শাহ আজিজকে প্রধানমন্ত্রী বানিয়েছিল।
মির্জা আজম বলেন, তারা শেখ হাসিনাকে ক্ষমতাচ্যুত করতে চায়। আজকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে আর জামাত বিএনপি চায় বাংলাদেশকে পিছনে টেনে নিয়ে যেতে। ওরা এখন দিন তারিখ ঠিক করে দিচ্ছে যে তারা শেখ হাসিনাকে ক্ষমতাচ্যুত করবে। তাহলে আমরা যারা আওয়ামী লীগ করি তারা কী এখানে বসে থাকবো। শেখ হাসিনাকে ক্ষমতাচ্যুত করতে তারা যে কর্মসূচি দিয়েছে ঢাকা অবরোধের সেদিন আমরাও ঢাকা দখলে রাখবো। ঢাকার সবচেয়ে পার্শ্ববর্তী জেলা নারায়ণগঞ্জ। আগামী ২৮ তারিখ আমাদের সমাবেশ বায়তুল মোকাররম দক্ষিণ গেট। ফ্লাইওভার থেকে তিন মিনিটে যাওয়া যায়। শাপলা চত্বরও কাছাকাছি। নারায়ণগঞ্জ ঢাকার সবচেয়ে কাছে। আশা করি নারায়ণগঞ্জ থেকে আমাদের সমাবেশে সবচেয়ে বড় সাপোর্ট যাবে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন