ঢাকা ১১:৩১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

১৬ দিন পর দুই বাংলাদেশির মরদেহ ফেরত দিলো বিএসএফ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপলোড সময় : ০৯:১৭:২২ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩০ ডিসেম্বর ২০২৩
  • / ২৯৭ বার পড়া হয়েছে

চুয়াডাঙ্গার দর্শনা সীমান্তে বিএসএফর গুলিতে নিহতের ১৬ দিন পর দুই যুবকের মরদেহ ফেরত দেওয়া হয়েছে।
শনিবার (৩০ ডিসেম্বর) বিকেলে দুই দেশের মধ্যে পতাকা বৈঠক শেষে তাদের মরদেহ ফেরত দেয় বিএসএফ।
স্থানীয় ইউপি মেম্বার আব্দুর রহমান জানান, চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার ছয়ঘরিয়া গ্রামের সাজেদুর রহমান ওরফে সাইদুল ও একই এলাকার খাজা মঈনুদ্দিনসহ কয়েকজন গরু আনতে ভারতে যান। রাতে তারা ভারতের নদীয়া জেলার গোবিন্দপুর বিএসএফ ক্যাম্পের একটি টহল দলের মুখোমুখি হয়। এসময় বিএসএফ তাদের লক্ষ্য করে গুলি ছুড়লে ঘটনাস্থলে সাইদুল ও খাজা মইনুদ্দিন নিহত হন। পরে বিএসএফ মরদেহ কৃষ্ণগঞ্জ থানায় নিয়ে যায়। পরে দুই দেশের মধ্যে পত্র চালাচালি করে ১৬ দিন পর মরদেহ বাংলাদেশে আনা হয়।

এ সময় বিজিবি চুয়াডাঙ্গা-৬ ব্যাটালিয়নের এডি মো. হায়দার ও বিএসএফের কোম্পানি কমান্ডার রাজেশ নারায়ণ উপস্থিত ছিলেন।
দর্শনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বিপ্লব কুমার সাহা জানান, ভারতে কৃষ্ণনগর থানার ওসি বিপেন সরকার মরদেহ হস্তান্তর করলে গ্রহণ করি। সন্ধ্যার পর মরদেহ স্বজনদের বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

১৬ দিন পর দুই বাংলাদেশির মরদেহ ফেরত দিলো বিএসএফ

আপলোড সময় : ০৯:১৭:২২ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩০ ডিসেম্বর ২০২৩

চুয়াডাঙ্গার দর্শনা সীমান্তে বিএসএফর গুলিতে নিহতের ১৬ দিন পর দুই যুবকের মরদেহ ফেরত দেওয়া হয়েছে।
শনিবার (৩০ ডিসেম্বর) বিকেলে দুই দেশের মধ্যে পতাকা বৈঠক শেষে তাদের মরদেহ ফেরত দেয় বিএসএফ।
স্থানীয় ইউপি মেম্বার আব্দুর রহমান জানান, চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার ছয়ঘরিয়া গ্রামের সাজেদুর রহমান ওরফে সাইদুল ও একই এলাকার খাজা মঈনুদ্দিনসহ কয়েকজন গরু আনতে ভারতে যান। রাতে তারা ভারতের নদীয়া জেলার গোবিন্দপুর বিএসএফ ক্যাম্পের একটি টহল দলের মুখোমুখি হয়। এসময় বিএসএফ তাদের লক্ষ্য করে গুলি ছুড়লে ঘটনাস্থলে সাইদুল ও খাজা মইনুদ্দিন নিহত হন। পরে বিএসএফ মরদেহ কৃষ্ণগঞ্জ থানায় নিয়ে যায়। পরে দুই দেশের মধ্যে পত্র চালাচালি করে ১৬ দিন পর মরদেহ বাংলাদেশে আনা হয়।

এ সময় বিজিবি চুয়াডাঙ্গা-৬ ব্যাটালিয়নের এডি মো. হায়দার ও বিএসএফের কোম্পানি কমান্ডার রাজেশ নারায়ণ উপস্থিত ছিলেন।
দর্শনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বিপ্লব কুমার সাহা জানান, ভারতে কৃষ্ণনগর থানার ওসি বিপেন সরকার মরদেহ হস্তান্তর করলে গ্রহণ করি। সন্ধ্যার পর মরদেহ স্বজনদের বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন