ঢাকা ০৮:৫৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ডেমরায় শিক্ষকদের কর্মশালায় হুমকি ও বাধা প্রয়োগের অভিযোগ ট্রাকের সমর্থকদের বিরুদ্ধে

মোঃ সালে আহমেদ (নিজস্ব প্রতিবেদক)
মোঃ সালে আহমেদ (নিজস্ব প্রতিবেদক)
  • আপলোড সময় : ০৭:১৫:০৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ জানুয়ারী ২০২৪
  • / ২৯০ বার পড়া হয়েছে

রাজধানীর ডেমরার বাদশা মিয়া রোডে সামসুল হক খান স্কুল এন্ড কলেজে ঢাকা-০৫ আসনের সতন্ত্র প্রার্থী মশিউর রহমান মোল্লা সজলের ট্রাক মার্কার লোকজন এসে জাতীয় শিক্ষা কারিকলামের ডেমরা থানার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের নিয়ে ট্রেনিং অনুষ্ঠানে মূল ফটকে লাথি মেরে ভিতরে ঢুকে শিক্ষকদের হত্যার হুমকি ও বাধা প্রয়োগ করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

০১ জানুয়ারি (সোমবার)দুপুরে ডেমরার বাদশা মিয়া রোডের সামসুল হক খান স্কুলের কলেজ ক্যাম্পাসে এ ঘটনা ঘটে।

মাতুয়াইল ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সোহেল খান ও ৬৫ নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী মোঃ হারুনের বিরুদ্ধে বেআইনিভাবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ঢুকে শিক্ষকদের ট্রেনিং অনুষ্ঠানে বাধা প্রয়োগ ও হুমকি ধামকির অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ বিষয়ে সামসুল হক খান স্কুল এন্ড কলেজের গর্ভনিং বড়ির সভাপতি ও কাউন্সিলর সামসুদ্দিন ভুঁইয়া সেন্টু বলেন,ডেমরা থানার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের নিয়ে শিক্ষা বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠানে এসে চিহ্নিত ইয়াবা ব্যবসায়ী, হত্যা মামলার আসামি সাবেক যুবলীগ নেতা সোহেল খান ও ৬৫ নং ওয়ার্ডের ভূমিদস্যু, মাদক ব্যবসায়ী ও হত্যা মামলার নামধারী আওয়ামী লীগ নেতা মোঃ হারুনসহ তাদের দলবল নিয়ে মূল ফটকে লাথি মেরে ভিতরে ডুকে শিক্ষকদের অকথ্য ভাষায় গালাগালি, হত্যার হুমকি ও তাদের বিপক্ষে কাজ করলে মেরে ফেলার হুমকি ধামকি দিয়ে চলে যায়।শিক্ষা প্রতিষ্ঠান যেখানে নিরপেক্ষ থাকবে সেখানে এসে তারা বেআইনীভাবে প্রভাব খাটিয়ে ভীত স্বস্ত করার চেষ্টা করছে।অতি দ্রুত এই সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার না করলে শিক্ষক, শিক্ষার্থীদের নিয়ে মানববন্ধন করার ও হুশিয়ারী প্রদান করে।

এসময় থানা পুলিশকে খবর দিলে ডেমরা থানা পুলিশ ও বিজিবি এসে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষন করে।

এ বিষয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী মশিউর রহমান সজলকে একাধিকবার মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তাকে পাওয়া যায় নি।

এ বিষয়ে ডেমরা থানার ওসি মো. জহিরুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি নিয়ে ভুল বুঝাবুঝির সৃষ্টি হয়েছে। পোলিং এজেন্ট প্রশিক্ষণ হচ্ছে এমন খবরের ভিত্তিতে অভিযুক্তরা প্রভাব খাটিয়েছে খবর শুনে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের পায়নি। তবে এ বিষয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষ বা শিক্ষকরা কেউ ওই ২ জনের বিরুদ্ধে হুমকি—ধমকি ও বাধা প্রদানের কোন লিখিত অভিযোগ করেনি।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

ডেমরায় শিক্ষকদের কর্মশালায় হুমকি ও বাধা প্রয়োগের অভিযোগ ট্রাকের সমর্থকদের বিরুদ্ধে

আপলোড সময় : ০৭:১৫:০৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ জানুয়ারী ২০২৪

রাজধানীর ডেমরার বাদশা মিয়া রোডে সামসুল হক খান স্কুল এন্ড কলেজে ঢাকা-০৫ আসনের সতন্ত্র প্রার্থী মশিউর রহমান মোল্লা সজলের ট্রাক মার্কার লোকজন এসে জাতীয় শিক্ষা কারিকলামের ডেমরা থানার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের নিয়ে ট্রেনিং অনুষ্ঠানে মূল ফটকে লাথি মেরে ভিতরে ঢুকে শিক্ষকদের হত্যার হুমকি ও বাধা প্রয়োগ করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

০১ জানুয়ারি (সোমবার)দুপুরে ডেমরার বাদশা মিয়া রোডের সামসুল হক খান স্কুলের কলেজ ক্যাম্পাসে এ ঘটনা ঘটে।

মাতুয়াইল ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সোহেল খান ও ৬৫ নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী মোঃ হারুনের বিরুদ্ধে বেআইনিভাবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ঢুকে শিক্ষকদের ট্রেনিং অনুষ্ঠানে বাধা প্রয়োগ ও হুমকি ধামকির অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ বিষয়ে সামসুল হক খান স্কুল এন্ড কলেজের গর্ভনিং বড়ির সভাপতি ও কাউন্সিলর সামসুদ্দিন ভুঁইয়া সেন্টু বলেন,ডেমরা থানার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের নিয়ে শিক্ষা বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠানে এসে চিহ্নিত ইয়াবা ব্যবসায়ী, হত্যা মামলার আসামি সাবেক যুবলীগ নেতা সোহেল খান ও ৬৫ নং ওয়ার্ডের ভূমিদস্যু, মাদক ব্যবসায়ী ও হত্যা মামলার নামধারী আওয়ামী লীগ নেতা মোঃ হারুনসহ তাদের দলবল নিয়ে মূল ফটকে লাথি মেরে ভিতরে ডুকে শিক্ষকদের অকথ্য ভাষায় গালাগালি, হত্যার হুমকি ও তাদের বিপক্ষে কাজ করলে মেরে ফেলার হুমকি ধামকি দিয়ে চলে যায়।শিক্ষা প্রতিষ্ঠান যেখানে নিরপেক্ষ থাকবে সেখানে এসে তারা বেআইনীভাবে প্রভাব খাটিয়ে ভীত স্বস্ত করার চেষ্টা করছে।অতি দ্রুত এই সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার না করলে শিক্ষক, শিক্ষার্থীদের নিয়ে মানববন্ধন করার ও হুশিয়ারী প্রদান করে।

এসময় থানা পুলিশকে খবর দিলে ডেমরা থানা পুলিশ ও বিজিবি এসে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষন করে।

এ বিষয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী মশিউর রহমান সজলকে একাধিকবার মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তাকে পাওয়া যায় নি।

এ বিষয়ে ডেমরা থানার ওসি মো. জহিরুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি নিয়ে ভুল বুঝাবুঝির সৃষ্টি হয়েছে। পোলিং এজেন্ট প্রশিক্ষণ হচ্ছে এমন খবরের ভিত্তিতে অভিযুক্তরা প্রভাব খাটিয়েছে খবর শুনে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের পায়নি। তবে এ বিষয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষ বা শিক্ষকরা কেউ ওই ২ জনের বিরুদ্ধে হুমকি—ধমকি ও বাধা প্রদানের কোন লিখিত অভিযোগ করেনি।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন