ঢাকা ০৫:১৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অপরাধীদের দ্রুত আইনের আওতায় আনতে হবে :এমপি সজল মোল্লা

মোঃ সালে আহমেদ (নিজস্ব প্রতিবেদক)
মোঃ সালে আহমেদ (নিজস্ব প্রতিবেদক)
  • আপলোড সময় : ০৫:০৯:২৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৪ মার্চ ২০২৪
  • / ২৩৯ বার পড়া হয়েছে

অপরাধীদের দলীয় কোনো পরিচয় থাকতে পারে না বলে মন্তব্য করেছেন আলহাজ¦ মশিউর রহমান মোল্লা সজল এমপি। তিনি বলেন, মাদক ব্যাবসা-সেবনকারি, ফুটপাত কিংবা হাটবাজার এবং জমি দখলের নামে যারা সন্ত্রাস করে, তাদের অতিদ্রুত আইনের আওতায় আনতে হবে। তাহলে দেখবেন সাধারণ জনগন পুলিশ-রাজনীতিবিদ ও কাউন্সিলরদের ভালো চোখে দেখবে।
বৃহস্পতিবার (১৪ মার্চ) দুপুরে রাজধানীর যাত্রাবাড়ির দয়াল ভরসা মৎস বাজারে ‘কাচা বাজার ও আড়ৎদার ব্যাবসায়ীদের’ আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে যাত্রাবাড়ি থানা।
মশিউর রহমান মোল্লা সজল বলেন, অবৈধ অটো রিক্সার ফলে যানজট, মাদক- চাঁদাবাজি, চোর-ডাকাতি ও কিশোর গ্যাং মুক্ত ঢাকা-৫ নির্বাচনী এলাকা গড়ে তুলতে পুলিশের সবচেয়ে বেশি ভ’মিকা রয়েছে। পুলিশ ইচ্ছে করলে ডেমরা-যাত্রাবাড়ি এবং কদমতলী এলাকাকে একটি আর্দশ নগরী উপহার দিতে পারে। এ ক্ষেত্রে প্রয়োজনে সচেতন নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিদের সঙ্গে নিতে পারেন। তবে আমি কাউকে পাশে পায় আর না পায়, ঢাকা-৫ সংসদীয় আসনকে আমি একটি আর্দশ মাদক-সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজমুক্ত নগরী হিসেবে গড়ে তুলবো। ইনশাআল্লাহ।
মশিউর রহমান মোল্লা বলেন, পুলিশের দায়িত্ব আইনের আলোকে যারা অপরাধী তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হবে। তিনি বলেন, আইনের শাসন ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা করে পুলিশ জনগণের মাঝে আস্থা ও বিশ্বাস অর্জন করেছে। শুধুমাত্র জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার ক্ষমতায় আছে বলে জনগণের মাঝে এই বিশ্বাস প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হয়েছে। তিনি বলেন, আপনাদের সবার মনে রাখতে হবে, অপরাধীর কোনো দল নেই। তার পরিচয় কেবলই অপরাধী এবং অপরাধী যত শক্তিশালীই হোক না কেন তাদের গ্রেফতারের মধ্যদিয়ে বিচার নিশ্চিত করতে হবে। এ সময় তিনি বলেন, একটি আর্দশ এলাকা গড়ে তুরতে হলে সকলের সার্বিক সহযোগিতার প্রয়োজন। আপনাদের সকলের নিরলস প্রচেষ্টা এবং সহযোগিতায় আমি একটি আর্দশ নগরী উপহার দিতে পারবো।
যাত্রাবাড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ বি এম ফরমান আলীর সভাপতিত্বে প্রধান আলোচক হিসেবে বক্তব্যে রাখেন ওয়ারি জোনের উপ-পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন, বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্যে রাখেন মো: মাসুদুর রহমান মনি। এছাড়াও ৬২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোস্তাক আহমেদ, বৃহত্তর ডেমরা থানা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি কৌশিক আহমেদ জসিম, ৪৮নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী জাহিদুল কবির রাজুসহ কাচাবাজার ও মৎস ব্যাবসায়ীরা উপস্থিত ছিলেন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

অপরাধীদের দ্রুত আইনের আওতায় আনতে হবে :এমপি সজল মোল্লা

আপলোড সময় : ০৫:০৯:২৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৪ মার্চ ২০২৪

অপরাধীদের দলীয় কোনো পরিচয় থাকতে পারে না বলে মন্তব্য করেছেন আলহাজ¦ মশিউর রহমান মোল্লা সজল এমপি। তিনি বলেন, মাদক ব্যাবসা-সেবনকারি, ফুটপাত কিংবা হাটবাজার এবং জমি দখলের নামে যারা সন্ত্রাস করে, তাদের অতিদ্রুত আইনের আওতায় আনতে হবে। তাহলে দেখবেন সাধারণ জনগন পুলিশ-রাজনীতিবিদ ও কাউন্সিলরদের ভালো চোখে দেখবে।
বৃহস্পতিবার (১৪ মার্চ) দুপুরে রাজধানীর যাত্রাবাড়ির দয়াল ভরসা মৎস বাজারে ‘কাচা বাজার ও আড়ৎদার ব্যাবসায়ীদের’ আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে যাত্রাবাড়ি থানা।
মশিউর রহমান মোল্লা সজল বলেন, অবৈধ অটো রিক্সার ফলে যানজট, মাদক- চাঁদাবাজি, চোর-ডাকাতি ও কিশোর গ্যাং মুক্ত ঢাকা-৫ নির্বাচনী এলাকা গড়ে তুলতে পুলিশের সবচেয়ে বেশি ভ’মিকা রয়েছে। পুলিশ ইচ্ছে করলে ডেমরা-যাত্রাবাড়ি এবং কদমতলী এলাকাকে একটি আর্দশ নগরী উপহার দিতে পারে। এ ক্ষেত্রে প্রয়োজনে সচেতন নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিদের সঙ্গে নিতে পারেন। তবে আমি কাউকে পাশে পায় আর না পায়, ঢাকা-৫ সংসদীয় আসনকে আমি একটি আর্দশ মাদক-সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজমুক্ত নগরী হিসেবে গড়ে তুলবো। ইনশাআল্লাহ।
মশিউর রহমান মোল্লা বলেন, পুলিশের দায়িত্ব আইনের আলোকে যারা অপরাধী তাদেরকে গ্রেপ্তার করা হবে। তিনি বলেন, আইনের শাসন ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা করে পুলিশ জনগণের মাঝে আস্থা ও বিশ্বাস অর্জন করেছে। শুধুমাত্র জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার ক্ষমতায় আছে বলে জনগণের মাঝে এই বিশ্বাস প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হয়েছে। তিনি বলেন, আপনাদের সবার মনে রাখতে হবে, অপরাধীর কোনো দল নেই। তার পরিচয় কেবলই অপরাধী এবং অপরাধী যত শক্তিশালীই হোক না কেন তাদের গ্রেফতারের মধ্যদিয়ে বিচার নিশ্চিত করতে হবে। এ সময় তিনি বলেন, একটি আর্দশ এলাকা গড়ে তুরতে হলে সকলের সার্বিক সহযোগিতার প্রয়োজন। আপনাদের সকলের নিরলস প্রচেষ্টা এবং সহযোগিতায় আমি একটি আর্দশ নগরী উপহার দিতে পারবো।
যাত্রাবাড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ বি এম ফরমান আলীর সভাপতিত্বে প্রধান আলোচক হিসেবে বক্তব্যে রাখেন ওয়ারি জোনের উপ-পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন, বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্যে রাখেন মো: মাসুদুর রহমান মনি। এছাড়াও ৬২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোস্তাক আহমেদ, বৃহত্তর ডেমরা থানা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি কৌশিক আহমেদ জসিম, ৪৮নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী জাহিদুল কবির রাজুসহ কাচাবাজার ও মৎস ব্যাবসায়ীরা উপস্থিত ছিলেন।

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন