ঢাকা ০৮:০৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কানাডার প্রধানমন্ত্রী ট্রুডোর জন্ম নিবন্ধন পাবনায়!

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপলোড সময় : ০৩:১১:১৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০২৪
  • / ২৩৮ বার পড়া হয়েছে

দেখলে চোখ কপালে উঠবে, শুনলে হতে হবে অবাক। কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো ‘জন্মসূত্রে পাবনা জেলার নাগরিক? গল্প নয় সত্যি; আবার সত্য নয় কিন্তু কাগজে-কলমে এমন ঘটনা ঘটেছে। পাবনার সুজানগর উপজেলার আহম্মদপুর ইউনিয়ন থেকে ট্রুডোর নামে ইস্যু করা হয়েছে ভুয়া জন্মনিবন্ধন সনদ। এই নিয়ে এলাকায় চলছে সমালোচনা। প্রশ্ন উঠেছে জন্ম নিবন্ধন সার্ভারের নিরপত্তা ও ব্যবস্থাপনা নিয়েও।
ওই ইউনিয়ন পরিষদের ইস্যুকৃত জন্মনিবন্ধন সনদে লেখা হয়েছে, ‘নাম জাস্টিন ট্রুরুডো, মাতা- মার্গারেট ট্রুরুডো, মাতার জাতীয়তা বাংলাদেশি, পিতা- পিয়েরে ট্রুরুডো, পিতার জাতীয়তা বাংলাদেশি।’

নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয়রা জানান, গত বছরের শেষের দিকে আহম্মদপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামাল হোসেন মিয়া মারা যান। এরপর থেকে এক মেম্বার ভারপ্রাপ্ত হিসাবে চেয়াম্যানের দায়িত্ব নেন। তবে মূলত কার্যক্রম চালান ইউনিয়ন পরিষদের সচিব আওলাদ হাসান। তার ছত্রছায়ায় পরিষদের কম্পিউটার অপারেটর নিলয় হোসেন টাকার বিনিময়ে যার তার নামে জন্মনিবন্ধন করেন।
এ বিষয়ে জানতে ইউনিয়ন পরিষদে গেলে কম্পিউটার অপারেটর নিলয় হোসেনকে পাওয়া যায়নি। তার মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

তবে ইউপি সচিব আওলাদ হাসান বলেন, ‘আমি এসব ঘটনায় কিছুই জানি না। সার্ভারের ইউজার নাম ও পাসওয়ার্ড আমার কাছে থাকলেও নিলয় হয়তো কোনো সময়ে জেনে গেছে। আমার অগোচরে সে ওটিপি কোড নিয়ে এসব করেছে। এই ঘটনায় আমি দায়ী নই।’
এ বিষয়ে আহম্মদপুর ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আব্দুর রউফ মোল্লার বলেন, ‘আমার কাছে এটি লজ্জার বিষয়। কারণ, যিনি বাংলাদেশের নাগরিক নন, তার নিবন্ধন হয়েছে আমার ইউনিয়ন পরিষদ থেকে। এটা আমার জন্য খুবই লজ্জার।’

পাবনার আইনজীবী আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘বৈধভাবে জন্মসনদের সংশোধন করানোর সময় নানা ঝক্কিতে পড়েন মানুষ। উল্টোদিকে কানাডার প্রধানমন্ত্রীর নামেও একরাতে করা যায় জন্মসনদ। তাহলে কতটা সুরক্ষিত দেশের এই নিবন্ধন সার্ভার?

পাবনা জেলা প্রশাসক মু. আসাদুজ্জামান বলেন, ‘আমি পাবনার বাইরে আছি। আহমদপুর ইউনিয়নে জন্ম নিবন্ধনের সকল কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে। বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

কানাডার প্রধানমন্ত্রী ট্রুডোর জন্ম নিবন্ধন পাবনায়!

আপলোড সময় : ০৩:১১:১৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০২৪

দেখলে চোখ কপালে উঠবে, শুনলে হতে হবে অবাক। কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো ‘জন্মসূত্রে পাবনা জেলার নাগরিক? গল্প নয় সত্যি; আবার সত্য নয় কিন্তু কাগজে-কলমে এমন ঘটনা ঘটেছে। পাবনার সুজানগর উপজেলার আহম্মদপুর ইউনিয়ন থেকে ট্রুডোর নামে ইস্যু করা হয়েছে ভুয়া জন্মনিবন্ধন সনদ। এই নিয়ে এলাকায় চলছে সমালোচনা। প্রশ্ন উঠেছে জন্ম নিবন্ধন সার্ভারের নিরপত্তা ও ব্যবস্থাপনা নিয়েও।
ওই ইউনিয়ন পরিষদের ইস্যুকৃত জন্মনিবন্ধন সনদে লেখা হয়েছে, ‘নাম জাস্টিন ট্রুরুডো, মাতা- মার্গারেট ট্রুরুডো, মাতার জাতীয়তা বাংলাদেশি, পিতা- পিয়েরে ট্রুরুডো, পিতার জাতীয়তা বাংলাদেশি।’

নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয়রা জানান, গত বছরের শেষের দিকে আহম্মদপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামাল হোসেন মিয়া মারা যান। এরপর থেকে এক মেম্বার ভারপ্রাপ্ত হিসাবে চেয়াম্যানের দায়িত্ব নেন। তবে মূলত কার্যক্রম চালান ইউনিয়ন পরিষদের সচিব আওলাদ হাসান। তার ছত্রছায়ায় পরিষদের কম্পিউটার অপারেটর নিলয় হোসেন টাকার বিনিময়ে যার তার নামে জন্মনিবন্ধন করেন।
এ বিষয়ে জানতে ইউনিয়ন পরিষদে গেলে কম্পিউটার অপারেটর নিলয় হোসেনকে পাওয়া যায়নি। তার মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

তবে ইউপি সচিব আওলাদ হাসান বলেন, ‘আমি এসব ঘটনায় কিছুই জানি না। সার্ভারের ইউজার নাম ও পাসওয়ার্ড আমার কাছে থাকলেও নিলয় হয়তো কোনো সময়ে জেনে গেছে। আমার অগোচরে সে ওটিপি কোড নিয়ে এসব করেছে। এই ঘটনায় আমি দায়ী নই।’
এ বিষয়ে আহম্মদপুর ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান আব্দুর রউফ মোল্লার বলেন, ‘আমার কাছে এটি লজ্জার বিষয়। কারণ, যিনি বাংলাদেশের নাগরিক নন, তার নিবন্ধন হয়েছে আমার ইউনিয়ন পরিষদ থেকে। এটা আমার জন্য খুবই লজ্জার।’

পাবনার আইনজীবী আনোয়ার হোসেন বলেন, ‘বৈধভাবে জন্মসনদের সংশোধন করানোর সময় নানা ঝক্কিতে পড়েন মানুষ। উল্টোদিকে কানাডার প্রধানমন্ত্রীর নামেও একরাতে করা যায় জন্মসনদ। তাহলে কতটা সুরক্ষিত দেশের এই নিবন্ধন সার্ভার?

পাবনা জেলা প্রশাসক মু. আসাদুজ্জামান বলেন, ‘আমি পাবনার বাইরে আছি। আহমদপুর ইউনিয়নে জন্ম নিবন্ধনের সকল কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে। বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন